‘আমি আপনাকে ভুলবনা স্যার’

সিনিয়র রিপোর্টার: সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক সম্পন্ন করেছে মেধাবী ছাত্র রিয়াজ উদ্দিন। স্বপ্ন, বড় হয়ে সরকারি কর্মকর্তা হয়ে মানুষের সেবা করবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিপরিক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণও হয়েছে। কিন্তু মাঝে বাদ সাধল পরিবারের আর্থিক অনটন। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে প্রয়োজন পনেরো হাজার টাকা জোগাড় হবে কীভাবে? রিয়াজের দিনমজুর কৃষক বাবা তাহিরপুরের বড়দল ইউনিয়নের কামারকান্দি গ্রামের জয়নাল আবেদিনের পক্ষে এই টাকা জোগাড় করা সম্ভব হচ্ছিল না। এই অনিশ্চয়তা নিয়ে গত মঙ্গলবার রিয়াজ দেখা করে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল আহাদের সঙ্গে।  জেলা প্রশাসক তার এই সমস্যার কথা শুনে সঙ্গে সঙ্গে তাকে সাহায্যের আশ্বাস দেন।

বুধবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে রিয়াজ উদ্দিনকে ভর্তি ফিসের পনেরো হাজার টাকা তোলে দেন জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ। এসময় তিনি বলেন, রিয়াজের মত মেধাবীদের পাশে দাঁড়াতে হবে। সমাজের বিত্তবানদেরকে এগিয়ে আসতে হবে।

রিয়াজ উদ্দিন এসময় আবেগাপ্লুত হয়ে জেলা প্রশাসককে বলে, ‘স্যার আমি আপনাকে কোনোদিনও ভুলবনা।’ রিয়াজ আরো বলে, ‘আমার বাবা গরীব কৃষক হয়েও আমাদের তিন ভাইবোনকে লেখাপড়া করাচ্ছেন। কিন্তু বয়স হওয়ায় এখন আর আগের মত কাজ করতে পারেন না। তিনি আমাকে বলেন আমাকে সরকারি কর্মকর্তা হয়ে মানুষের সেবা করতে হবে। সেই স্বপ্নপূরণ করতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হচ্ছি, কিন্তু বাবাকে যখন বললাম এতগুলো টাকা লাগবে তখন তিনি কেঁদে ফেললেন। পরে অনেকের কাছে সাহায্য চেয়েও পেলেন না। ডিসি স্যার না থাকলে আমার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া হত না।’

সুনামগঞ্জমিরর/বিইউ

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *