০৫ জুলাই ২০১৭, বাংলাদেশ সময় ০৭:১৭ পিএম

আটগ্রাম মহাবিদ্যালয়ের নবীনবরণ

স্টাফ রিপোর্টার, সুনামগঞ্জ মিরর

[img]

সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তা বলেছেন, শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ায় মনোযোগী হয়ে দেশকে এগিয়ে নেবে। দেশকে এগিয়ে নেবার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন শিক্ষা। জানার জন্য পড়তে হবে। আর শিক্ষার্থীদেরকে পড়াশোনায় উৎসাহ দিতে অভিভাবকদেরও এগিয়ে আসতে হবে। বুধবার দুপুরে জেলার দিরাই উপজেলার নগদীপুর গ্রামের আটগ্রাম মহাবিদ্যালয়ের নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। বেলা ১১টায় আটগ্রাম মহাবিদ্যালয়ের নবীনবরণ অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মানিক। সভাপতিত্ব করেন, কলেজটির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক সিভিল সার্জন ডা. সৈয়দ মোনাওয়ার আলী। একপর্যায়ে অনুষ্ঠানটি জনসমাবেশে পরিণত হয়। জয়া সেনগুপ্তা বক্তব্যে আরো বলেন, আপনাদের কাছ থেকে এ এলাকার সংস্কার ও উন্নয়নের বিভিন্ন দাবি এসেছে, আমি আপনাদের পাশে আছি। আমি আপনাদের জন্য কাজ করে যাব। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহিবুর রহমান মানিক বলেন, এ কলেজটি এমপিওভুক্ত করার জন্য আমরা সহযোগিতা করব। প্রতিষ্ঠাতা একাই পুরো ব্যয় বহন করে যাচ্ছেন, এটি প্রশংসার দাবীদার। এধরনের কল্যাণমূলক কাজে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। এসময় তিনি ঠাট্টাচ্ছলে বলেন, কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে একসঙ্গে দু’জন এমপিকে আগে কখনো দেখিনি! সভাপতির বক্তব্যে ডা. সৈয়দ মোনাওয়ার আলী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রয়োজন। সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন দরকার। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার মান বাড়াতে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর শিক্ষাব্যবস্থায় জোর দিতে হবে, শিক্ষকদের শূন্যপদ পূরণ করতে হবে। এছাড়া, নগদীপুর গ্রামে একটি দশশয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল স্থাপনের পরিকল্পনা করা হয়েছে, এতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। জবাবে ড. জয়া সেনগুপ্তা ও মহিবুর রহমান মানিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। আটগ্রাম কলেজের প্রভাষক সৈয়দ ইমনের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শিবিলী আহমেদ বেগ। দুপুর দেড়টায় অনুষ্ঠান শেষ হয়।

© সুনামগঞ্জমিরর ডটকম | সম্পাদক: সৈয়দ তাওসিফ মোনাওয়ার | নিউজরুম ইনচার্জ: আল-আমিন