সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে নাদের বখ্ত পুননির্বাচিত

সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে বিপুল ভোটে পুননির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান মেয়র নাদের বখ্ত। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফলে নাদের বখ্তকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। আওয়ামী লীগ মনোনীত এই প্রার্থী নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে ২১৬৮৬ ভোট পেয়েছেন। মেয়র পদের অন্য দুই প্রার্থী ছিলেন বিএনপি’র মুর্শেদ আলম ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ। ধানের শীষ প্রতীকে মুর্শেদ আলম পেয়েছেন ৫৮৭০ ভোট ও রহমত উল্লাহ হাতপাখা প্রতীকে ২৪৯ ভোট পেয়েছেন।

নাদের বখ্ত

২০১৮ সালের শুরুতে সুনামগঞ্জ পৌরসভার তৎকালীন জননন্দিত মেয়র আয়ূব বখ্ত জগলুলের আকস্মিক মৃত্যুতে মেয়র পদটি শূন্য হয়। পরে তাঁর ছোটভাই যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী নাদের বখ্ত দেশে এসে মেয়র পদে উপনির্বাচন করে নির্বাচিত হন। দুইবছর ধরে দায়িত্ব পালনকালে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ড ও জনসম্পৃক্ততার কারণে প্রশংসিত হন তিনি।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। সুনামগঞ্জ পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডে তিনজন মেয়র প্রার্থী, ৪৮ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ১৩ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরসহ মোট ৬৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ২৩টি কেন্দ্রের ১২৬টি ভোটকক্ষে ৪৭ হাজার ১৫ ভোটারের ভোটগ্রহণ করার কথা ছিল, যার মধ্যে ২৩ হাজার ২৩৮ জন পুরুষ এবং ২৩ হাজার ৭৭৭ জন নারী।

তবে করোনা অতিমারীর কারণে ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি খানিকটা কম বলে দেখা যায়। প্রায় ৫৯ শতাংশ ভোটার ভোট দেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। কোথাও কোনো বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে কাউন্সিলর পদে ১ নং ওয়ার্ডে নির্বাচিত হয়েছেন আবুল হাসনাত মোহাম্মদ কাওসার, ২ নং ওয়ার্ডে সৈয়দ ইয়াছিনুর রশিদ ইয়াছিন, ৩ নং ওয়ার্ডে মোশাররফ হোসেন, ৪ নং ওয়ার্ডে চঞ্চল কুমার লোহ, ৫ নং ওয়ার্ডে গোলাম সাবেরীন সাবু, ৬ নং ওয়ার্ডে আবাবিল নূর, ৭ নং ওয়ার্ডে আহসান জামিল আনাস, ৮ নং ওয়ার্ডে আহমদ নুর এবং ৯ নং ওয়ার্ডে গোলাম আহমেদ। এছাড়া ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচিত হয়েছেন পিয়ারা বেগম, ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে সামিনা চৌধুরী মনি, এবং ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডে সৈয়দা জাহানারা বেগম।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার বলেন, সকাল থেকেই শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিয়েছেন ভোটাররা। সুন্দরভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সুনামগঞ্জমিরর/সাদিকুল/টিএম

শেয়ার করুন