Skip to content

করোনায় সুনামগঞ্জে সুস্থতার হার ৮৭.৫৩ শতাংশ

মহামারী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্তের মধ্যেও আশার আলো জেগেছে সুনামগঞ্জে। জেলায় মোট আক্রান্তের ৮৭ দশমিক ৫৩ ভাগ মানুষ করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

জেলার ১১টি উপজেলা ও ৪টি পৌরসভায় এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ২৯৯ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ৭ জন মানুষ। সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত জেলায় মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ২২ জন।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন জানান, করোনা থেকে যারা সুস্থ হয়েছেন তারা কখনো মনোবল হারান নি। তারা নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রেটিনযুক্ত খাবার, গরম পানির ভাপ, গরগিল, আদাযুক্ত চা ও ভিটামিন ‘সি’ খেয়েছেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী জানা যায়, জেলায় এ পর্যন্ত মোট ২ হাজার ২৯৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে ২২ জন মৃত্যুবরণ করেছেন এবং ২ হাজার ৭ জন করোনা জয় করে বাড়ি ফিরেছেন।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা: সদর উপজেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৬৯ জন। এর মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৯৯ জন।

দোয়ারাবাজার: মোট আক্রান্ত ১৩০ জন। এরমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ১জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১৭ জন।

বিশ্বম্ভরপুর: জেলা সদরের কাছে এ উপজেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৯২ জন। এরমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮৮ জন এবং কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৪ জন।

তাহিরপুর: এ উপজেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬ জন। এরমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৩ জন। অন্যান্যরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে।

জামালগঞ্জ: ছোট এ উপজেলায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন ৯৯ জন। এরমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮৭ জন।

দিরাই: এ উপজেলায় মহামারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০১ জন । এরমধ্যে মত্যুবরণ করেছেন ২ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৭ জন। অন্যান্যরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে।

ধর্মপাশা: জেলা সদর থেকে ৮৫ কিলোমিটার দুরে দুর্গম এ উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ জন। এরমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩৬ জন। অন্যান্যরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

ছাতক: জেলার বৃহত্তর এ উপজেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮৬ জন। এরমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৮ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪২১ জন। অন্যানরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে।

জগন্নাথপুর: প্রবাসী অধ্যুষিত এ উপজেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৪ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৫৩ জন। অন্যান্যরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ: এ উপজেলায় এ পর্যন্ত মোট ১৩৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১৬ জন।

শাল্লা: জেলার সবচেয়ে দুর্গম ও ছোট এ উপজেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ জন এবং সুস্থের হার শতভাগ।

সুনামগঞ্জমিরর/এসএ

x