Skip to content

এমসি কলেজের ধর্ষণের ঘটনায় তিন অভিযুক্তের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় ৩জনের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় ধর্ষণ মামলার এজহারভুক্ত আসামী মাহবুবুর রহমান রনি, সন্দিগ্ধ আসামী রাজন ও আইনুদ্দিনকে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ২য় আদালতের বিচারক সাইফুর রহমানের আদালতে হাজির করা হয়।

শুনানীর পর আদালতের বিচারক ৫দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরাণ থানার ওসি তদন্ত আদালতে ৭দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।তবে রিমান্ড শুনানীকালে আসামীদের পক্ষে কোন আইনজীবী আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

রাষ্ট্রপক্ষের এপিপি খোকন কুমার দত্ত বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ৭দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানী শেষে আদালত ৫দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে সিলেটের টিলাগড় এলাকার এমসি কলেজের গেটের সামনে থেকে ঐ তরুণীকে তুলে নিয়ে যায় কয়েকজন। ঐ তরুণী তার স্বামীর সাথে একটি গাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন।

তরুণীর স্বামী এজাহারে উল্লেখ করেন, তার স্ত্রীকে যখন জোর করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় তখন দুই ব্যক্তি তাকে গাড়িতে আটক করে রাখে।

এর ঘণ্টাখানেক পর এমসি কলেজের ছাত্রাবাসের একটি কক্ষের সামনে থেকে নিজের স্ত্রীকে বিধ্বস্ত অবস্থায় উদ্ধার করেন স্বামী।

পরে রাতেই ঐ তরুণীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়।

এমসি কলেজের হোস্টেলের পাশের আবাসিক এলাকার এক বাসিন্দা জানান রাতে বেশ কিছুক্ষণ ছাত্রাবাসের ভেতর থেকে চিৎকার চেঁচামেচির শব্দ শুনতে পাচ্ছিলেন তিনি। পরে একপর্যায়ে নারী কন্ঠের চিৎকার শুনতে পাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে স্থানীয় আরো কয়েকজনকে নিয়ে ছাত্রাবাস এলাকার ভেতরে প্রবেশ করেন।

সেসময় হোস্টেলের পাশের স্টাফ কোয়ার্টার থেকে কর্মচারীরা জড়ো হলে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে ঘটনা সম্পর্কে জানতে পারেন তারা।

সুনামগঞ্জমিরর/এমএইচ

x