Skip to content

সুনামগঞ্জে ৪ লক্ষাধিক শিশুকে এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা

৪ লক্ষাধিক শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ভিটামিন খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সুনামগঞ্জ জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) সাড়ে ১১ টায় সুনামগঞ্জ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালের মিলনায়তনে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন-২০২০ বিষয়ক জেলা প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান সিভিল সার্জন মো. শামস উদ্দিন।

প্রেস ব্রিফিং-এ জেলার ১১টি উপজেলা ও ৪টি পৌরসভার ২ হাজার ১৭৯ টি কেন্দ্রে ৪ লাখ ৪ হাজার ৩৩৪ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের বিষয়টি জানানো হয়। এর মধ্যে ৪৬ হাজার ৫০৪ জন ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশু এবং ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৮৩০ জন ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশু রয়েছে।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন’র সভাপতিত্বে ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের জেলা স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওমর ফারুকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিং-এ বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্সর ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক এমরানুল হক চৌধুরী, সাংবাদিক কুলেন্দু শেখর দাস, মিজানুর রহমান, হিমাদ্রী শেখর ভদ্র, শহীদ নূর আহমেদ প্রমুখ।

সুনামগঞ্জে ৪ লক্ষাধিক শিশুকে খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ

প্রেস ব্রিফিং-এ জানানো হয়, আগামী ৪ আক্টোবর থেকে ১৭ আক্টোবর পর্যন্ত সারা দেশের ন্যায় সুনামগঞ্জে শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো হবে। এ দিন জেলার ২ হাজার ১৬৭টি স্থায়ী-অস্থায়ী ও ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী সকল শিশুকে একটি করে নীল রঙের ক্যাপসুল এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী প্রত্যেক শিশুকে ১টি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এই দিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।

প্রেস ব্রিফিং-এ আরও জানানো হয়, জেলার ধর্মপাশা, তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুর, দোয়ারাবাজার, দিারই ও শাল্লার দুর্গম ৩৬টি ইউনিয়নে আরও ৪ দিন বাড়ি বাড়ি গিয়ে বাদ পড়া শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ প্লাস খাওয়াবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা।

সুনামগঞ্জমিরর/এসএ

x