Skip to content

‘মানুষকে রক্ষায় প্রয়োজনে গুলি চালাতে হবে’

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থগিত ৩৯২টি কেন্দ্রে ভোট অনুষ্ঠিত হবে বৃহস্পতিবার। ছয় জেলার আট আসনে নির্বাচন উপলক্ষে মঙ্গলবার থেকেই মাঠে নামছে মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স। এসব এলাকায় নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় গত ১২ জানুয়ারির বৈঠকে নিরীহ মানুষের প্রাণ রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে প্রয়োজনে গুলি চালাতে বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দিন আহমদ।
আইন শৃঙ্খলার ওই সভায় নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. জাবেদ আলী বলেছেন, টেলিভিশনে নেতিবাচক সংবাদ প্রচারের কারণেই এ অবস্থার সৃস্টি হয়েছে। স্থগিত কেন্দ্রগুলোর নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নিতে বলেছেন তিনি।

মঙ্গলবার থেকে এসব নির্বাচনী এলাকায় পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ান আনসার, র‌্যাব ও বিজিবির সমন্বয়ে মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে।
দিনাজপুর-৪ আসনে স্থগিত ৫৭ কেন্দ্রে ১৯টি, কুড়িগ্রাম-৪ আসনে স্থগিত ২ কেন্দ্রে ১টি, গাইবান্ধা-১ আসনে স্থগিত ৫৪ কেন্দ্রে ১৮টি, গাইবান্ধা-৩ আসনে স্থগিত ৮০ কেন্দ্রে ২৭টি, গাইবান্ধা-৪ আসনে স্থগিত ৭২ কেন্দ্রে ২৪টি, বগুড়া-৭ আসনে স্থগিত ৪৬ কেন্দ্রে ১৬টি, যশোর-৫ আসনে স্থগিত ৬০ কেন্দ্রে ২০টি ও লক্ষীপুর-আসনে স্থগিত ২১ কেন্দ্রে ৭টিসহ মোট ১৩২টি মোবাইল টিম তাদের কাপজ শুরু করেছে। একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স প্রতি ৩টি কেন্দ্রের নিরাপত্তায় নিযোজিত থাকবে।

তাছাড়া ভোটেরদিন প্রতি ১০টি কেন্দ্রে হিসেবে ১৩২ কেন্দ্রে ৪৩টি মোবাইল টিম থাকবে। প্রতি ৫টি ভোটকেন্দ্রের জন্য ১টি করে মোট র‌্যাবের ৮২টি ও প্রতি ৫টি ভোটকেন্দ্রের জন্য ১টি করে মোট বিজিবির ৮২টি মোবাইল টিম কাজ করবে।

x