Skip to content

জেলার ৯টি উপজেলায় ফায়ার ডিফেন্স নেই

সুনামগঞ্জ সদর ও ছাতক উপজেলায় ফায়ার স্টেশন থাকলেও বাকি ৯টি উপজেলায় নেই ফায়ার স্টেশন। তথ্যসূত্র ফায়ার স্টেশন সংশ্লিষ্টদের।

সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে ২০১৩ সাল থেকে চলতি ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ছোট-বড় ৪৩টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এক কোটি চার লাখ ৯৭ হাজার ৫৫০ টাকা। আর উদ্ধার করা হয়েছে এক কোটি ৯৩ লাখ ১৫ হাজার টাকা।

সুনামগঞ্জ জেলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ-সহকারী পরিচালক শারিফুল আহসান ভুঁইয়া জানান, ২০১৩ সালের জানুয়ারি থেকে চলতি মাস পর্যন্ত জেলায় ছোট-বড় ৪৩টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বেশিরভাগই বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট, জ্বলন্ত চুলার আগুন ও সিগারেটের আগুন থেকে ঘটেছে। অগ্নিকাণ্ডে বেশির ভাগ ছিল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। বিভিন্ন স্থানে অগ্নিনির্বাপণের পাশাপাশি প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা, সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের কাজ করতে হয় বলেও তিনি জানান। দিরাই ও বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় জমি অধিগ্রহণ চলছে আর জগন্নাথপুর উপজেলায় নির্মাণাধীন রয়েছে ফায়ার স্টেশন। কবে নাগাদ সম্পন্ন হবে সঠিক করে বলতে পারছে না সংশ্লিষ্টরা। অপরদিকে জেলা সদর থেকে বিভিন্ন উপজেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকায় অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অগ্নিনির্বাপনী দল সময়মত ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই আগুনে পুড়ে যায় সবকিছু। অভিজ্ঞ মহলের মতে, জেলা শহরের বিভিন্ন জলাশয় ভরাট ও প্রয়োজনীয় রির্জাভ ট্যাংক না থাকায় পানির অভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

x