Skip to content

‘দ্বিপাক্ষিক সমঝোতায় আরও বেশি টেস্ট খেলার সুযোগ’

অনেক জল্পনা-কল্পনার পর শেষ পর্যন্ত ‘বিগ থ্রি’ প্রস্তাবই পাস হলো আইসিসির বোর্ড সভাতে। ভোটের মাধ্যমে শনিবার চূড়ান্ত হয়েছে বিষয়টি। সভায় প্রস্তাবের পক্ষে প্রয়োজনীয় ভোট পাওয়ায় প্রশাসনিক, প্রতিযোগিতা ও আর্থিক কাঠামো পরিবর্তন হচ্ছে।

সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত আইসিসির গুরুত্বপূর্ণ সভায় পূর্ণ সদস্যদের মধ্যে শুধু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট এবং পিসিবি ভোট কার্যক্রমে অংশ নেয়নি। বাকি ৮টি পূর্ণ সদস্য ভোটাভুটিতে সরাসরি অংশ নিয়েছে। আগে দক্ষিণ আফ্রিকা এই প্রস্তাবের বিপক্ষে অবস্থান নিলেও শেষ পর্যন্ত তারা পক্ষে ভোট দিয়েছে। র‌্যাঙ্কিংয়ে নিচের দিকের দলের মধ্যে বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ে আগে থেকেই ওই প্রস্তাবের পক্ষ নিয়েছিল। বিশেষ করে ৩ পরাশক্তির খসড়া প্রস্তাব থেকে দ্বিস্তরবিশিষ্ট টেস্ট ক্রিকেট বাদ দেওয়ায় বাংলাদেশ এর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। শেষ পর্যন্ত ৩ পরাশক্তিই বিজয়ী। এ বিষয়ে শনিবার বিসিবি কার্যালয়ে মিডিয়া কামিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত আজকের (শনিবার) আইসিসির মিটিংয়ে বাংলাদেশ তার পূর্বেকার অবস্থানে ছিল। বিশেষ করে দ্বিস্তরবিশিষ্ট খেলার বিরোধিতা করেছে। বাংলাদেশ তার স্বার্থে কোনোরকম সমঝোতা করেনি।’

জালাল আরও বলেছেন, ‘এখন আর দ্বিস্তর খেলা নিয়ে কোনোরকম ঝামেলা থাকল না। শেষ পর্যন্ত (দ্বিস্তর) ওই প্রস্তাব বাতিল হয়ে গেছে। তবে আগের যে এফটিপি ছিল সেটা ২০২০ সাল পর্যন্ত ঠিক থাকবে এ ব্যাপারে আজকের (শনিবার) সভায় সর্বসম্মতভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে। একই সঙ্গে ২০২৩ সাল পর্যন্ত এফটিপি ঠিক করা হয়েছে। তবে এখন এফটিপির বাইরেও দ্বিপাক্ষিক সমঝোতার ভিত্তিতে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের সঙ্গে টেস্ট ম্যাচ খেলার এক প্রকার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।’ (দ্য রিপোর্ট)

x