Skip to content

তৃপ্তির সঙ্গে ইসি থেকে বিদায় নিলেন ড. মোহাম্মদ সাদিক

দীর্ঘ তিন বছরেরও বেশি সময় নির্বাচন অনুষ্ঠানে কমিশনকে সহযোগিতা করে বিদায় নিলেন সচিব মোহাম্মদ সাদিক। নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনসহ দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন থেকে বিদায় নিয়ে নতুন কর্মস্থল শিক্ষামন্ত্রণালয়ে যোগ দেওয়ার সময় তিনি বলেন, বেশ তৃপ্তি ও অহংকার নিয়েই নতুন কর্মস্থলে যোগ দিচ্ছি।

নির্বাচন কমিশন সচিব হিসেবে বৃহস্পতিবারই ইসি সচিবালয়ে শেষ কর্মদিবস কাটালেন ড. মোহাম্মদ সাদিক।

বেলা পৌনে ২টার দিকে কমিশন থেকে নতুন কর্মস্থল শিক্ষামন্ত্রণালয়ে রওয়ানা দেন।

এসময় তাকে গাড়িতে তুলে দিতে আসা ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. সিরাজুল ইসলামসহ অন্যদের উদ্দেশ্যে কথা বলতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

সরকারি আমলা হলেও আপাদমস্তক একজন কবি মোহাম্মদ সাদিক বলেন, “আই লাভ ইউ। সত্যি আমি আপনাদের ভালোবাসি। খুব মিস করবো।”

এ সময় চোখের কোণে আনন্দাশ্রু কবি প্রাবন্ধিক সাদিকের।

এরআগে সিইসি কাজী রকিবউদ্দীন আহমদসহ চার নির্বাচন কমিশনারের কাছে বিদায় নেন তিনি।

বিদায়ী সভায় মো. সাদিক বলেছেন, তার পিতার মতো আদর্শবান একজন হয়ে কাজ করেছেন সব সময়। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মেনেই সব দায়িত্ব পালন করেছেন। দুই কমিশনের অধীনেই সর্বাত্মক সহযোগিতা পেয়েছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি বলেন, সব কাজে সবার সহযোগিতা পেয়েছি। স্বতফূর্তভাবে কাজ করেছি। তৃপ্তি ও অহংকার নিয়েই আজ বিদায় নিচ্ছি।

পরে নিজ কার্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিব মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলামের কাছে দায়িত্ব দিয়ে যান ৮২ ব্যাচের এ সরকারি আমলা।

এসময় সচিবের চেয়ারে বসেছিলেন সিরাজুল ইসলাম। তার সামনেই ছিলেন বিদায়ী সচিব। নবনিযুক্ত অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান, যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলীও উপস্থিত ছিলেন সেখানে।

তিন বছরের বেশি সময় ধরে ইসি সচিবালয়ে ছিলেন সাদিক। বহুল আলোচিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন থেকে শুরু করে দশম জাতীয় নির্বাচন ও উপজেলা নির্বাচন হয়েছে তার সময়কালে।

x