Skip to content

ছাতকে ১৯ ফেব্রুয়ারী ভোট গ্রহণ

আসন্ন ১৯ ফেব্রুয়ারী সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলা পরিষদের নির্বাচন।

গত সোমবার শেষ হয়েছে নির্বাচনী প্রচারণা।

প্রায় ১ মাস নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের সরব প্রচারনায় মুখরিত ছিল শিল্পাঞ্চলখ্যাত ছাতক উপজেলার ১টি পৌর সভা, ১৩টি ইউনিয়নের প্রায় ৫ শতাধিক গ্রামগঞ্জ, হাট-বাজার। গোটা উপজেলা জুড়ে বইছে উৎসবের আমেজ। পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল।

এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৮ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে কেন্দ্রীয় আ’লীগ সমর্থিত উপজেলা আ’লীগের সাবেক সভাপতি আবরু মিয়া তালুকদার (ঘোড়া প্রতীক), আ’লীগ নেতা আওলাদ আলী রেজা (দোয়াতকলম), স্থানীয় এমপি সমর্থিত আ’লীগ নেতা অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল (কাপ পিরিচ), আ’লীগ নেতা গিয়াস মিয়া (চিংড়ি মাছ), ছাতক পৌর জামায়াতের আমীর ও ১৯ দলীয় জোটের যুগ্ম আহবায়ক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম তালুকদার (টেলিফোন),ছাতক পৌর বিএনপি’র একাংশের সভাপতি ডাঃ আফসার উদ্দিন (মোটর সাইকেল), বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মিজান সমর্থিত উপজেলা বিএনপি’র একাংশের সাধারন সম্পাদক নিজাম উদ্দিন (হেলিকপ্টার), একই গ্রুপের বিএনপি নেতা এমআর চৌধুরী রাজা (আনারস) প্রতীক নিয়ে মাঠে লড়াই করছেন।

তবে পৌর বিএনপি’র একাংশের সভাপতি আফসার উদ্দিন নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষনা দিলেও এখন পর্যন্ত বিএনপি নেতা ও এম আর রাজা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন।

সম্প্রতি উপজেলা ও পৌর ১৯ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমে পৌর জামায়াতের আমীর এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম তালুকদারকে ১৯ দলের সমর্থন প্রদান করা হয়েছে।

ছাতক উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনকে সফলভাবে সম্পন্ন করতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে উপজেলার ৯৬ টি ভোট কেন্দ্রে প্রিসাইডিং পোলিং অফিসার সহ পর্যাপ্ত সংখ্যক নির্বাচনী কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

ছাতকে পুরুষের ছেয়ে মহিলাদের ভোটারের সংখ্যা বেশি। মহিলারা যে দিকে ঝুকি নিবেন সে দিকে প্রার্থীর জয়ের সম্ভাবনা বেশি। এবারের ভোটাররা যোগ্য এবং সৎ ব্যাক্তি খোজছেন। অধিকাংশ ভোটাররা সৎ আদর্শ অসহায় মানুষের পাশে যাকে, সবসময় পাওয়া যায়। তাদের ভোটের পাল্লা ভারি হচ্ছে।

x