Skip to content

আত্মতৃপ্ত হওয়ার কোনো কারণ নেই : ফখরুল

শত চেষ্টা করেও আওয়ামী লীগ উপজেলা নির্বাচনে ভরাডুবি থেকে নিজেদের বাঁচাতে পারেনি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ সময় মির্জা ফখরুল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বেশির ভাগ উপজেলায় জয় পেয়ে আত্মতৃপ্ত হওয়ার কোনো কারণ নেই। যে সংগ্রাম চলছে তা কেবল নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য নয়। এ সংগ্রাম দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব এবং অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রাম।

তিনি বলেন, উপজেলায় আওয়ামী লীগের ভরাডুবি হয়েছে। শত চেষ্টা করেও তারা এ থেকে নিজেদের বাঁচাতে পারেনি। দশম জাতীয় সংসদে লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি করা হলে সেখানে তাদের ভরাডুবি হতো। ওই নির্বাচনে বিএনপি ৯৫ ভাগ আসনে জয়ী হতো।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বিএনপি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, মানুষের অধিকার, গণতন্ত্র, স্বাধীনতা এবং সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য এক মাসে ৩শ’ জন তরুণ প্রাণ দিয়েছে। ৬১ জন গুম হয়েছে। এদের মধ্যে কয়েক জনের লাশ পাওয়া গেছে। অনেকের লাশ পাওয়া যায়নি। জানি না, ত্যাগ স্বীকার করতে আর কতজনকে খুন-গুম হতে হবে। আর কত রক্ত দিতে হবে।

বিএনপির আন্দোলন সফল হয়নি সরকার দলের নেতাদের এমন বক্তব্যের প্রতিবাদে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, আন্দোলন শতভাগ সফল হয়েছে। আন্দোলন সফল হওয়ার কারণেই ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ৫ শতাংশ মানুষও ভোট দেয়নি। এতে প্রমাণ হয়েছে শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না।

এ সময় জনগণের চোখের ভাষা বুঝে দ্রুত নতুন করে জাতীয় নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেন, নবম সংসদের মেয়াদ থাকা অবস্থায় দশম সংসদ গঠন করা অসাংবিধানিক। এজন্য বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করা যেতে পারে।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ড. আব্দুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল-নোমান, সেলিমা রহমান, প্রয়াত ভাষা সৈনিক অলি আহাদের মেয়ে ব্যারিস্টার রুহিন ফারহানা প্রমুখ।

x