"হাঁস প্রতীকে ভোট দিয়ে অভিভাবকত্বের ছায়ায় আমাকে পাশে রাখুন"

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস্ চেয়ারম্যান ও মানবাধিকার কর্মী ফেরদৌসী সিদ্দিকা, ত্যাগ ও তারুণ্যের অগ্রযাত্রায় হাঁস প্রতীকে ভোট দিয়ে তাকে পূণর্বার নির্বাচিত করার জন্য এলাকাবাসীর প্রতি উদাত্ত আহবাণ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকারের উপজেলা পরিষদে আইনী নানাবিধ সমস্যা থাকায় উপজেলা পরিষদকে ক্ষমতা দেয়া হয়নি গত ৫টি বৎসর। একজন এমপির ইচ্ছেমতো পরিচালনা করা হয়েছে উপজেলা পরিষদকে। এমনকি স্থানীয় সরকারে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের কোন রূপরেখা না থাকায় এলাকাবাসীর প্রত্যাশা অনুযায়ী কোন কাজ করার সুযোগ পাইনি। তাই সারাদেশের বঞ্চিত জনপ্রতিনিধির ন্যায় আমিও গত ৫ বছরে সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলাম।

বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগকালে এসব কথা বলেন তিনি।

ফেরদৌসী তার বক্তব্যে আরো বলেন, সুনামগঞ্জবাসীকে প্রাণের অবিচ্ছেদ্য অংশ উল্লেখ করে বলেন, লজ্জায় দুঃখে কষ্টে আপনাদের কাছে যেতেও পারিনি। যেভাবে আপনারা চেয়েছিলেন সেভাবে কোন কাজ করতে পারিনি। এজন্য আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি হাত জোর করে। আপনাদের হিসাবের খাতায় লেখা হয়েছে আমার অনেক ভুল। তারপরও জানি তবুও ভালবাসবেন গভীরভাবে আমাকে। এই বিশ্বাস আস্থা আছে এবং থাকবে জেনেই আবারও নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। আপনারা আমার পিতা যোদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হকের মেয়েকে ভোট দিয়েছিলেন অনেক ভালবেসে। আমি আমার পিতার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আপনাদের সেবায় নিজেকে নিবেদিত রাখার চেষ্টা করেছি ৫টি বছর। নির্বাচিত হওয়ার ২ বছর পর আমি আমার শ্রদ্ধেয় পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হককে হারাই। পিতৃহারা হয়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ি। তাছাড়া বিভিন্ন সময়ে অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে রাজনৈতিক রোষানলে পড়ে বারংবার আপনাদের কাছে যাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছি। তবে আমার সদিচ্ছা ও আন্তরিকতার কোন কমতি ছিলনা। তাই অনেকের মাঝে ভুল বুঝাবুুঝি হতে পারে। আপনারা দয়া করে আমাকে ভুল বুঝবেননা। আমি আপনাদের হতভাগা সন্তান হিসেবে আপনাদের মাঝেই থাকতে চাই। বর্তমানে আমার মাথার উপর কোন ছায়া নেই। আপনাদের স্নেহের পরশ ও অভিভাবকত্বের ছায়া দিয়ে সব সময় সুঃখে দুঃখে আমাকে আপনাদের পাশে রাখার চেষ্ঠা করবেন। আমি নেতা নই। আপনাদের কর্মী ও সেবক হতে চাই। ত্যাগ ও তারুণ্যের অগ্রযাত্রায় আমাকে আপনাদের পাশে রাখবেন এই প্রত্যাশা রাখছি সকলের কাছে।
হাঁস প্রতীকে ভোট দিয়ে অভিভাবকত্বের ছায়ায় আমার পাশে থাকুন।
(সুনামগঞ্জমিররডটকম/বি/২৪০২২০১৪/এফএস)

x