Skip to content

খালেদা উপজেলায় বিশ্বাস করেন না: আশরাফ

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া উপজেলা নির্বাচনে বিশ্বাস করেন না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

তিনি দাবি করেন, বিএনপি ১৯৯১ সালে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা গ্রহণ করার সঙ্গে সঙ্গে উপজেলা নির্বাচন বাতিল করেছিল।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর মিরপুর গোলারটেক খেলার মাঠে শাহ আলী, মিরপুর ও দারুস সালাম থানা এবং ৭, ৮, ৯, ১০, ১১, ১২, ১৩ ও ৯৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, আমরা স্থানীয় সরকার ব্যবস্থায় বিশ্বাস করি, উপজেলা নির্বাচনেও বিশ্বাস করি। এজন্য উপজেলাকে যুগোপযোগী করে স্থানীয় সরকারকে আরো শক্তিশালী করতে চাই। এছাড়া স্থানীয় সরকার ব্যবস্থায় নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যাতে দৃঢ়তার সঙ্গে কাজ করতে পারে সেজন্য প্রধানমন্ত্রী এ সব আইন খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, এক দেশে দুই ধরনের ব্যবস্থা থাকতে পারে না। সেজন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে জাতীয় সংসদ, স্থানীয় সরকার, সিটি কর্পোরেশন, উপজেলা, ইউনিয়ন এবং গ্রাম পর্যায়ে একই ধরণের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট আইনসমূহ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ভারতে জাতীয় সরকার, বিধানসভা, পঞ্চায়েত সরকার সবই কিন্তু সংসদীয় পদ্ধতিতে পরিচালিত হয়।

তিনি বলেন, জাবাবদিহিতামূলক স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা গড়ে তোলা অত্যন্ত জরুরি। সেজন্য যত ধাপ আছে, সব ধাপকেই আমরা আরও গতিশীল করতে চাই।

আশরাফ বলেন,পত্র-পত্রিকায় উপজেলা নির্বাচনের ফলাফলে বলা হচ্ছে বিএনপি এত, আওয়ামী লীগ এত, জাতীয় পার্টি এত, জামায়াত এত ইত্যাদি। কিন্তু তারা কীভাবে জানলেন, উনি আওয়ামী লীগের না বিএনপির। ব্যালট পেপারে কী কোন দলীয় মার্কা আছে?

নির্বাচন কমিশন প্রদত্ত হলফ নামার সমালোচনা করে তিনি বলেন, এই হলফনামা রাজনীতিবিদদের চরিত্র হনন নামা। আমি নির্বাচন করবো বিধায় এক আইন। অন্যজনের জন্য আরেক আইন। এক দেশে দুই আইন চলতে পারে না।

আমরা সেই আইনও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখছি উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, আমি রাজনীতি করি বিধায় আমার ঘর-বাড়ি-সংসার থাকতে পারবে না? আমি কী গাছ তলায় বাস করবো?

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ‘শেখ হাসিনার অধিনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠভাবে হয়ে গেল। অথচ সেই নির্বাচন ঠেকাতে শত শত মানুষ হত্যা করলো বেগম খালেদা জিয়া। এমন কোন কাজ নেই যা খালেদা জিয়া করেননি। কিন্তু তিনি ঠেকাতে পারেননি। আজকে গণতন্ত্র রক্ষা পেয়েছে, সংবিধান রক্ষা পেয়েছে। আমরা সংবিধানের বাইরে যায়নি।

মিরপুর থানা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আগা খান মিন্টুর সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালন করেন সাধারণ সম্পাদক এস এম হানিফ। অন্যান্যর মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল হক সবুজ, ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিলন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মকবুল হোসেন. আসলামুল হক এমপি প্রমুখ। কাউন্সিল উদ্বোধন করেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ আজিজ।

x