Skip to content

তরুণীরা ধূমপান করেন, এটাও তো ‘কমন’ দৃশ্য!

না, এটা অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড কিংবা ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোনো স্টেডিয়ামের চিত্র না। এটা আমাদের বাংলাদেশের মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে একটি চিত্র।

সংবিধিবদ্ধ সতর্কিকরণ হিসাবে সব জায়গাতের লেখা দেখা যায় “ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর”। আর বাংলদেশের আইনে প্রকাশ্যে ধুমপান আইনত দন্ডনীয়। তবে এই ঘোষণা শুধুমাত্র ঘোষণার মধ্যেই সীমাবদ্ধ। এই আইন শুধুমাত্র সংবিধানেই আছে। বাস্তবে নেই তার কোনো প্রয়োগ। আর তাইতো স্টেডিয়ামের মত এমন একটি পাবলিক প্লেসেও দেখা যায় প্রকাশ্যে ধুমপান করতে, তাও তিনি একজন তরুণী। শুধু তরুণী নন, স্মার্ট-আধুনিক তরুণী তিনি।

আধুনিকতার ছোঁয়া আমাদের একদিকে যেমন অন্ধ করে দিচ্ছে, তেমনই বুদ্ধির দিক দিয়ে প্রতিবন্ধিও করে দিচ্ছে। আর তাই তরুণীরাও সমানভাবে নেশাগ্রস্থ হয়ে পড়ছে নানা নেশায়। আজ যেখানে সেখানে তাদেরকেও নির্লজ্জের মত ধুমপান করতে দেখা যায়।

যার সর্বশেষ প্রমাণ আমাদের সামনে পড়ে ২ ফেব্রুয়ারী, রোববারে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়া এশিয়া কাপের পাকিস্তান বনাম ভারত খেলা চলাকালীন সময়। সেখানে স্টেডিয়ামের গ্যালারীতে হাজারও জনসমুদ্রের মাঝে বসে থাকতে দেখা যায় সেই তরুনীটিকে ধুমপানরত অবস্থায়। বেশ সাবলীল ভঙ্গিতে।

এটা কি আধুনিকতা? যে আধুনিকতা আমাদের মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়, যা আধুনিকতা আমাদের মনুষ্যত্বকে ধ্বংস করে দেয়, তা কি আসলেই আধুনিকতা? নাকি সভ্যতার যবনিকাপাত?

x