Skip to content

পদ্মা সেতু নির্মাণে তিন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত

যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে তিনটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত করা হয়েছে। টেকনিক্যাল কমিটি যাচাই-বাছাই শেষে তিনটি প্রতিষ্ঠানকেই অনুমোদন দিয়েছে। সেতু নির্মাণে আর্থিক প্রস্তাব দেয়ার জন্য তাদের কাছে চিঠি দিয়েছে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার সকালে সেতু ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, ওই তিন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩ এপ্রিলের আগে আর্থিক প্রস্তাব পেশ করতে বলা হয়েছে। তবে তার আগেও দিতে পারে বলে জানান যোগাযোগমন্ত্রী।

তিন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দক্ষিণ কোরীয় দু’টি কোম্পানি হচ্ছে স্যামসাং ও ডেইলিম। চীনা কোম্পানিটি হচ্ছে চায়না মেজর ব্রিজ।

যোগাযোগামন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি প্রতিষ্ঠানগুলোর আর্থিক প্রস্তাব পরীক্ষা করে দেখবে। উপযুক্ত প্রতিষ্ঠানটিকে বিবেচনায় নিয়ে কার্যাদেশ দেয়া হবে। যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে পদ্মা সেতুর জন্য প্রাথমিকভাবে একটি সম্ভাব্য নির্মাণ ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে এটি আমরা এখনো লক করে রেখেছি। তিন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্র দিলে তাদের হিসাবের সাথে এটি মিলিয়ে দেখা হবে।

বিশ্ব ব্যাংক যেভাবে পরিকল্পনা, নকশা করেছিল সেটাকে সামনে রেখেই সেতুর কাজ শুরু করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতু নির্মাণ হলে রাজধানীর সঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের ২১টি জেলার সরাসরি সড়ক যোগাযোগ তৈরি হবে। পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ১ দশমিক ২ শতাংশ বাড়বে বলে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে। পদ্মা সেতু নির্মাণে ২০১১ সালে বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে ১২০ কোটি ডলারের ঋণ চুক্তি হলেও পরামর্শক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় বিষয়টি ঝুলে যায়। দীর্ঘ টানাপোড়েন শেষে গত বছর জানুয়ারিতে দেশের সবচেয়ে বড় এ অবকাঠামো প্রকল্পে অর্থায়নে বিশ্ব ব্যাংককে ‘না’ বলে দেয় সরকার। সে সময় এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছিল ২৯০ কোটি ডলার।

x