Skip to content

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে শাল্লায় সংঘর্ষে নিহত ১

শাল্লা উপজেলার শাল্লা ইউনিয়নের কামারগাঁও চোরাবস্তিতে দু’দল চোরের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার, পতিত জায়গা ও চোরাই মালামাল ভাগ-ভাগি নিয়ে সংঘর্ষে স্বাধীন (৪০) নামের এক চোর নিহত হয়েছে।

এসময় রিয়াজ উদ্দিন প্রকাশ ভেলাই (৩৮) নামেক অপর চোর আহত হয়েছে।

নিহত স্বার্ধীন শাল্লা ইউনিয়নের কামারগাঁও গ্রামের আমির হোসেন ওরফে ডাক্তারের ছেলে এবং আহত ভেলাই একই গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে।

বুধবার দিনগত রাত সাড়ে ১১ টায় রিয়াজ উদ্দিন প্রকাশ ভেলাই কে শাল্লা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শাল্লা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবাসিক চিকিৎসক ডা. হেলাল উদ্দিন ভেলাইকে ভর্তির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় কামারগাঁও চোরাবস্তির তাহের এবং একই বস্তির হান্নানের দলের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে কামারগাঁও চোরাবস্তির তাহের এবং একই বস্তির হান্নানের দলের মধ্যে আধিপত্যবিস্তার, পতিত জায়গা দখল ও চোরাই মালামাল ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। কিন্তু কিছু দিন আগে তাহের একটি মামলায় জেলে যাওয়ারপর তার সেকেন্ড ইন কমান্ড আক্কাছ দলটি নিয়ন্ত্রণ করে আসছিল। দলের প্রধান তাহের জেলে যাওয়ারপর দলের অনেক সদস্য গ্রেফতার হওয়ার ভয়ে পার্শবর্তী নেত্রকোনা জেলার বিভিন্নস্থনের আশ্রয় নেয়। এতে দলটি দুর্বল হয়ে পড়ায় প্রতিপক্ষ হন্নানের দল এলাকায় শক্তিশালী হয়ে ওঠে। একের পর এক এলাকা হান্নানের দলের কব্জায় চলে যাওয়ায় তাহেরের দলটি সবকিছুর ভাগ-বাটোয়ারা থেকে পিছিয়ে পরে। এনমকি তাহেররের দখল করা গ্রামের পার্শবর্তী আবদা হাওরের পতিত জায়গা হান্নানের দলের লোকজনের দখল করে নেয়। বুধবার তাহেরের লোকজন এলাকায় এসে এ অবস্থা দেখে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে উভয় পক্ষের চোরেরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এতে একজন নিহত ও একজন আহত হয়।

শাল্লা থানা ভারপ্রাপ্ত (ওসি) মো. শহিদুর রহমান জানান, রাত সাড়ে ১১ টায় ঘটনাস্থল থেকে স্বার্ধীনের লাশ নিয়ে পুলিশ থানায় পৌছেছে। বৃহস্পতিবার ময়না তদন্তেও জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

x