Skip to content

নাইন্দার হাওরে উৎসবমুখর পরিবেশে হাত দিয়ে মাছ শিকার

ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের নাইন্দার হাওরে পানি শুকিয়ে যাওয়ায় উৎসব মুখর পরিবেশে এলাকার শত-শত মানুষ হাত দিয়ে মাছ শিকারে মেতে উঠেছেন।

বৃহস্পতিবার বিভিন্ন গ্রামের কয়েকশ মাছ শিকারীকে কম পানিতে মাছ শিকার করতে দেখা গেছে। মাছ শিকারের এমন দৃশ্য বাংলার গ্রামেগঞ্জে এখনো বিরাজমান। অন্যান্যবারের মত এবারও বিভিন্ন গ্রামের মানুষ দলবদ্ধ হয়ে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত হাওরের পানিতে মাছ শিকারে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। প্রায় পুরো সপ্তাহজুড়েই চলবে হাত দিয়ে মাছ শিকার।

মাছ শিকারে আসা এলাকার অনেকে বললেন, হাওরের পানি অনেকটা শুকিয়ে গেলে হাত দিয়ে ছোট-বড় মাছ ধরতে উৎসাহ পায় এলাকার লোকজন। খুব বেশি পরিমাণ মাছ না পাওয়া গেলেও বড়দের সাথে ছোটরাও আসে মাছ শিকারের এ উৎসবে যোগ দিতে।

কাঁদা সরিয়ে ছোট-বড় বাইম, টাকি ও শৈল জাতীয় মাছ হাত দিয়ে শিকার করছে এলাকাবাসী।

নোয়ারাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আফজাল আবেদীন আবুল জানান, মাছ শিকারের জন্য ছাতকের নাইন্দার হাওর অন্যতম জায়গা। লক্ষিবাউর, টেংগারগাঁওসহ কয়েকটি গ্রামের মৎস্যজীবি সম্প্রদায়ের লোকজন এখান থেকে মাছ ধরে তা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। হাওরের নাব্যতা কমে যাওয়ায় শুষ্ক মৌসুমের আগেই হাওরের পানি শুকিয়ে যায়। সরকারিভাবে হাওর খনন ও বিলের সীমারেখা নির্ধারিত হলে এখানের মাছের চাহিদা অনেকটা পূরণ করে আরো বেশি পরিমাণে মাছ পাওয়া সম্ভব।

x