Skip to content

হরতালের হুমকি দিল রানা প্লাজার ক্ষতিগ্রস্তরা

সাভারে ধসে পড়া রানা প্লাজার ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যরা ক্ষতিপূরণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ করেছে।

শুক্রবার দুপুরে ধসে পড়া রানা প্লাজার সামনে আয়োজিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, রানা প্লাজা ধসের ১১ মাস হতে চলল এখনো আমরা উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ পাইনি।

তাই আগামী মাসের মধ্যে এ ক্ষতিপূরণ দেওয়া না হলে হরতাল-অবরোধের মাধ্যমে রাস্তাঘাট বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দেন তারা।

রানা প্লাজা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক কেএম মিন্টু বলেন, গত ১১ মাস ধরে আমরা আমাদের ক্ষতিপূরণের দাবিতে আন্দোলন-সংগ্রাম-মানববন্ধনসহ বিক্ষোভ মিছিল করে আসছি। কয়েকবার বিজিএমইএ ভবনে গিয়েছি কিন্তু তারা আমাদের ক্ষতিপূরণ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।

তিনি বলেন, ভবন ধসের ঘটনায় আহত, নিহত ও নিখোঁজ শ্রমিক পরিবারের সদস্যরা বর্তমানে অনাহারে অর্ধাহারে এবং বিনাচিকিৎসায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। সরকার কিংবা বিজিএমইএ আমাদের পাশে না দাঁড়িয়ে আমাদের পুলিশ দিয়ে লাঠিপেটা করেছে। কয়েকদিন আগে বিজিএমইএ ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে গেলে কর্মকর্তারা আমাদের পুলিশ দিয়ে গুলি করে হত্যার হুমকি দেন।

মিন্টু বলেন, বিজিএমইএ সভাপতি আতিকুল ইসলামের কাছে আমরা ক্ষতিপূরণ দাবি করলে আমাদের দুই হাত অথবা দুই পা কাটা না হলে ক্ষতিপূরণ দেওয়া যাবে না বলে তিনি জানান।

পরে তারা ঢাকা আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে। এসময় তারা স্লোগান দেয়, ‘এতো টাকা এল গেল, আমাদের টাকা কোথায় গেল।’

সমাবেশে রানা প্লাজা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এমদাদুল হক, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক কেএম মিন্টুসহ ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

x