"আ.লীগকে না রুখলে দেশের অস্তিত্ব থাকবে না"

আ’লীগকে না রুখলে দেশ থাকবে না, দেশের অস্তিত্ব থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া।শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও শহীদ জিয়ার ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘অবৈধ সরকার হত্যা, গুমসহ কথাই কথাই মিথ্যা মামলায় বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে। আমি আমার জীবনে একটা লোককেও টোকা দেয়নি। অথচ আমার নামে হত্যা মামলা দেয়া হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘৫ জানুয়ারি নির্বাচন সাংবিধানিকভাবে অবৈধ। আমেরিকা ও ইউরোপের পার্লামেন্ট ছাড়াও নির্বাচনের পর খোদ ভারতের পত্রিকাগুলো নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ বলে উল্লেখ করেছে।’

স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ জিয়ার অবদান সম্পর্কে রফিকুল ইসলাম বলেন, সমগ্রজাতি ২৫ তারিখে পাক বাহিনীর আক্রমণের পর অপেক্ষায় ছিল একটি ডাকের জন্য। এ ডাক জিয়া দিয়েছিলেন। আ.লীগ যত কথাই বলুক শেখ মুজিবের কণ্ঠে তারা কোনো রেকর্ড শুনাতে পেরেছে?’

বাংলাদেশ নিয়ে ভারতের কূট রাজনীতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভারত আমদের বাজার ও রাজনীতি দখল করছে। দখলের শুরু ৭১ থেকে।’

আত্বসমার্পণ দলিল সম্পর্কে প্রবীণ এ নেতা বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের হেয় প্রতিপণ করে চুক্তিতে মুক্তিযোদ্ধাদের মিত্রবাহিনীর অধীনে দেখানো হয়েছে। মুক্তিবাহিনীদের স্বাধীন সত্তা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হইনি।

মেজর (অব.) হানিফের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান (অব.) মেজর সৈয়দ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল প্রমুখ।

x