Skip to content

টি-টোয়েন্টি নিয়ে র‌্যাব-সেনাবাহিনীর নিরাপত্তা মহড়া

বাংলাদেশ বনাম ভারতের ম্যাচ চলছে। ব্যাট হাতে ভারতীয় ব্যাটসম্যান আর বল হাতে মাশরাফি মর্তুজা। হঠাৎ করেই বোমা বিস্ফোরণ। চারদিকে হুড়োহুড়ি আর আহাজারি। খেলোয়াড়দের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে মাঠ ঘিরে ফেলেন র‌্যাব সদস্যরা।

তাদের হোটেলে পৌঁছে দিতে হেলিকপ্টার নিয়ে মাঠে আসে বাংলাদেশের এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ফোর্স- র‌্যাব। ঘটনাটি বাস্তব নয়, মহড়া কেবল।

আসন্ন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ২০১৪-এর নিরাপত্তা দিতে মহড়া করেছে র‌্যাব ও সেনাবাহিনীর যৌথ টিম।

শনিবার দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়ে প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে ন্যাশনাল আর্মি স্টেডিয়ামে চলে এই মহড়া।

এতে আসন্ন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলায় কোনো ধরনের নাশকতা ও অপ্রীতিকর ঘটনার তাৎক্ষণিক মোকাবেলায় র‌্যাবের হেলিকপ্টার, ডগ স্কোয়াড, বোম ডিস্পোজাল ইউনিট, র‌্যাবের বিশেষ স্ট্রাইকিং ফোর্সের মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।

র‌্যাবের পক্ষে র‌্যাব হেডকোয়ার্টার্সের সদস্যরা এ মহড়ায় অংশ নেন।

অন্যদিকে, সেনাবাহিনীর পক্ষে ৪৬ বিগ্রেডিয়ার ব্যাটালিয়ন কমান্ডাররা জঙ্গি হামলায় করণীয় দিকগুলো তুলে ধরেন।

মহড়ায় উপস্থিত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, বিশ্বকাপের সব ম্যাচ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে পরিচালনার জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে। তবে নিরাপত্তার দায়িত্বে সাধারণ জনগণকেও এগিয়ে আসতে হবে।

র‌্যাবের মহাপরিচালক মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, খেলোয়াড়দের নিরাপত্তায় বিমানবন্দর থেকে হোটেল পর্যন্ত নিয়মিত বাহিনীর পাশাপাশি সাদা পোশাকেও র‌্যাব সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন।

x