আ.লীগ ডাকাতদের সংগঠনে পরিণত: বিএনপি

তৃতীয় দফা উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর নৃশংস আক্রমণ, লোহমর্ষক খুন ও গুম, ভোটকেন্দ্র দখল, ব্যালট পেপার ছিনতাই, ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাধা প্রদান, জালভোটসহ বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ করেছে বিএনপি।

দলের যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ তিনি বলেছেন, ‘জনগণের ওপর অব্যাহত নির্যাতন বজায় রেখে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ জনসংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক দলের পরিবর্তে ডাকাত দলের সংগঠনে পরিণত হয়েছে। তাই তাদের সব ধরনের কর্মকাণ্ডের মধ্যে দুর্বৃত্তপনার বাড়ন্ত দেখা যাচ্ছে। উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তা আরো স্পষ্ট হয়েছে।’

শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নয়পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সারাদেশের ভোটগ্রহণের সার্বিক চিত্র তুলে ধরে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, ‘যেসব জায়গায় বিএনপির শক্ত ঘাঁটি রয়েছে, সেসব এলাকায় সরকার সমর্থকরা বেশি দুর্বৃত্তপনা করছে। বিশেষ করে নোয়াখালী ফেনী অঞ্চলে এ প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসনের এলাকায়ই আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয়ী হয়েছে- তারা এই বিষয়টিকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাচ্ছে। এ জন্য যত ধরনের নৃশংস তাণ্ডব প্রয়োজন সবই করা হচ্ছে। শাসকদলের জবর দখলের বিরুদ্ধে স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও নির্বাচন কমিশনকে লিখিত অভিযোগ জানানো হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।’ এসময় ফেনী জেলার দাগনভূঁইঞা উপজেলার অভিযোগের একটি ফ্যাক্স বার্তা সাংবাদিকদের দেখান রিজভী আহমেদ।

সংবাদ সম্মেলনের দলের যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহিন, মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা, শিরিন সুলতানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

x