পৃথক ৩টি মামলায় কলিম উদ্দিন মিলনসহ ৭৭ নেতাকর্মীর জামিন

পুলিশ এ্যাসল্ট ও দ্রুত বিচার মামলায় সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক কলিম উদ্দিন মিলনসহ ৭৭ জন নেতাকর্মীর জামিন পেয়েছেন।

মঙ্গলাব দুপুরে আমল গ্রহনকারি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত (ছাতক জোন) এ পুলিশ এ্যাসল্ট দু’টি মামলায় এবং দ্রুত বিচার আইনে দায়েরকৃত একটি পৃথক পৃথক ভাবে আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ০৮ ডিসেম্বর ছাতকে পুলিশের ওপর হামলা পামপিঠের অভিযোগ এনে ছাতক থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাইফ উল্লাহ বাদি হয়ে সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলনসহ ৪৫ জন বিএনপি’র নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশ এ্যাসল্ট মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আমল গ্রহনকারি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচরক ও আতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল করিম এর আদালতে কলিম উদ্দিন মিলনসহ ৪০ জন নেতাকর্মী আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।

অপরদিকে একই দিন যুবলীগ নেতা শাহীন মিয়া চৌধুরী বাদি হয়ে ছাতক পৌর যুবদলের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর জসিম উদ্দিনসহ ৩৩ জনের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে আরো একটি মামলা দয়ের করেন।

এ মামলায় দ্রুত বিচার আদালতের বিচারক ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইমাম হাসান এর আদালতে পৌর কাউন্সিলর জসিম উদ্দিনসহ ২২ নেতাকর্মী আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।
অন্যদিকে গত বছরের ১২ নভেম্বর পুলিশ এ্যাসল্টসহ মারপিঠ ভাঙচুরের আভিযোগ এনে ছাতক উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মতিউর রহমানসহ ৩১ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

এ মামলায় আমল গ্রহণকারি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে(ছাতক জোন) এ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মতিউর রহমানসহ ১৫ জন নেতাকর্মী আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।

x