Skip to content

দু’জন ইউপি সদস্যার বিরুদ্ধে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ

ছাতকে ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের দু’জন সদস্যা স্বাধীন বেগম ও রুসনা বেগমের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেছে ইউনিয়নের ছড়ারপাড় ও গোয়ালগাঁও গ্রামের শ্রমিকরা।

অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচির ১১কর্মদিবসের টাকা পরিশোধ না করায় ৪, ৫, ৬নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্যা রুসনা বেগম ও ৭, ৮, ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্যা স্বাধীন বেগমের বিরুদ্ধে শতাধিক নারী-পুরুষ বুধবার দুপুরে উপজেলা চত্বরে বিক্ষোভ প্রদর্শনসহ ১শ’ ৩৮জন শ্রমিক স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে ইউনিয়নের অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থার কর্মসূচির আওতায় ইউনিয়ন পরিষদ সড়ক হইতে মুক্তিযোদ্ধা সদর উদ্দিনের বাড়ি পর্যন্ত সড়ক ৪০কার্য দিবসে সম্পন্ন করা হয়। এ কাজের প্রকল্প চেয়ারম্যান ইউপি সদস্যা স্বাধীন বেগম শ্রমিকদের ১১কার্য দিবসের মজুরি পরিশোধ করেননি।

অপরদিকে গোয়ালগাঁও সদর আলীর বাড়ি হইতে কুতুব মেম্বারের বাড়ি পর্যন্ত সড়কটিও ৪০কার্যদিবসে সম্পন্ন হয়। এ কাজের প্রকল্প চেয়ারম্যান ইউপি সদস্যা রুসনা বেগম একইভাবে ১১কার্য দিবসের শ্রমিকদের মজুরি পরিশোধ করেননি। উভয় ইউপি সদস্যা যোগসাজসে ১১কার্য দিবসের বিল প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে উত্তোলন করে জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা আত্মসাতের চেষ্টা চালায়। গত ৬মার্চ শ্রমিকদের ১১কার্য দিবসের বকেয়া টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে স্থানান্তর করতে দু’মহিলা সদস্যা সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে পৃথক সঞ্চয়ী হিসাব নং-৭০৮৩-৬ ও ৭০৮৪-৪ খুলে আত্মসাতের চেষ্টা চালান।

এর আগে গত ১৩মার্চ ইউনিয়নের ১মহিলা সদস্যাসহ ৮সদস্য রুসনা বেগম ও স্বাধীন বেগমের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও অনৈতিক কার্যক্রমের অভিযোগে আরো একটি লিখিত অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে দায়ের করা হয়। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের ভিজিডি কর্মসূচিতে স্বাধীন বেগমের মেয়ে ফাতেমা বেগম টুম্পা যাহার ভিজিডি বই নং-১০৬ ও রুসনা বেগমের মেয়ে মঞ্জিলা বেগম পপি যাহার ভিজিডি বই নং-৫৭ ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভিজিডি তালিকায় নাম অন্তর্ভূক্ত করেন। এছাড়াও ভিজিএফ’র চাল বিতরণকালে উপকার ভোগিদের তালিকায় ভূয়া নাম জমা দিয়ে চাল আত্মসাত করতে গিয়ে বহুবার ধরাও পড়েছেন এ দু’সদস্যা।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান সুফি আলম সোহেল জানান, ইউপি সদস্যা স্বাধীন বেগম ও রুসনা বেগমের বিরুদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদে দূর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। বর্তমানে পৃথক দু’প্রকল্পের ১১কার্য দিবসের অর্থ আত্মসাতের চেষ্টা করলে ভূক্তভোগী শ্রমিকরা তাদের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠে। অভিযোগ প্রদানের সময় ইউনিয়নের সদস্য বাবুল মিয়া, নুরুল হক, বাবুল মিয়া-২, ইসলাম উদ্দিন, নাজমুল হক, নুরুল ইসলাম, সাজিদুর রহমান বুলু, সদস্যা হেলিমা বেগম, স্থানীয় সাবেক মেম্বার হাজী আশিদ আলী, সাবেক মেম্বার এনায়েতুল হক, আলীমুজ্জামান হিরা, মইন উদ্দিনসহ লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

x