এবারও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ৪৮

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৫৪ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পর এবার সংরক্ষিত নারী আসনেও নির্বাচিত হয়েছেন ৪৮ জন প্রার্থী।

নির্বাচিতদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের ৩৮ জন, জাতীয় পার্টির ৫ জন, ওয়ার্কার্স পার্টির ১ জন, জাসদের ১ জন এবং স্বতন্ত্র ৩ জন।

বুধবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে রিটানিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব জেসমিন তুলি নির্বাচিতদের নামের তালিকা প্রকাশ করেন।

তবে নির্বাচিতদের এ তালিকা গেজেট আকারেও প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন ইসির কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল। এদিন কোনো প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে না নেওয়ায় এবং কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ইসি এ ৪৮ জনকে নির্বাচিত ঘোষণা করেছে।

সূত্র জানায়, তালিকাটি গেজেট আকারে প্রকাশের জন্য বিজি প্রেসে পাঠানো হবে। গেজেট প্রকাশের তিনদিনের মধ্যে নির্বাচিতদের শপথ গ্রহণেরও বিধান রয়েছে। সে হিসেবে, আগামী ২৩ মার্চের মধ্যে মহিলা সংসদ সদস্যদের শপথ পড়ানো হবে।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীত মোছা. সেলিনা জাহান লিটা, সফুরা বেগম, হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, উম্মে কুলসুম স্মৃতি, বেগম আক্তার জাহান, সেলিনা বেগম, সেলিনা আক্তার বানু, লায়লা আরজুমান বানু, শিরিন নাঈম, কামরুল লায়লা জলি, হেপী বড়াল, রিফাত আমিন, নাসিমা ফেরদৌসী, মিসেস লুৎফা নেছা, মমতাজ বেগম, তারানা হালিম, মনোয়ারা বেগম, মাহজাবিন খালেদ, ফাতেমা জোহরা রাণী, দিলারা বেগম, ফাতেমা তুজ্জহুরা, ফজিলাতুন নেছা, পিনু খান, সানজিদা খানম, নিলুফার জাফর উল্লাহ, রোকসানা ইয়াসমিন ছুটি, নাভানা আক্তার, আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী, শামছুন নাহার বেগম, ফজিলাতুন নেসা বাপ্পী, ওয়াসিকা আয়শা খান, জাহান আরা বেগম সুরমা, ফিরোজ বেগম (চিনু), আমিনা আহমেদ, সাবিনা আক্তার তুহিন, রহিমা আক্তার, হোসনে আরা বেগম ও কামরুন নাহার চৌধুরী।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির হাজেরা খাতুন, জাসদের লুৎফা তাহের। স্বতন্ত্র জোটের কাজী রোজী, নুরজাহান বেগম ও উম্মে রাজিয়া কাজল।

জাতীয় পার্টির বেগম নুর-ই-হাসনা লিলি চৌধুরী, মাহজাবীন মোরশেদ, মেরিনা রহমান, রওশন আরা মান্নান ও শাহনারা বেগম।

এর আগে ৯ মার্চ ইসিতে মনোয়নপত্র জমা দেন ৫০ জন প্রার্থী। ১১ মার্চ যাচাই বাছাই শেষে বিলখেলাপির দায়ে আওয়ামী লীগের সাবিয়া নাহার বেগম ও জাতীয় পার্টির (জাপা) খোরশেদ আরা হকের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এরপর অবশিষ্ট ৪৮ জন প্রার্থীর মনোয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করে রিটার্নিং কর্মকর্তা।

মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া দুই প্রার্থী ইসিতে ১২ মার্চ আপিল করলে ১৬ মার্চ শুনানি শেষে তাদের আবেদন খারিজ করে দেয় ইসি।

নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশের পরবর্তী ২১ দিনের মধ্যে শূন্য দুই আসনে তফসিল ঘোষণা করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. ফরহাদ হোসেন জানান, ১৮ মার্চ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে কোনো প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। তাই ৪৮ প্রার্থীই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

x