Skip to content

নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের হুঁশিয়ারি রিজভীর

২৩ মার্চ অনুষ্ঠেয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ও নেতাকর্মীদের বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর, নির্যাতন, হত্যাচেষ্টা এবং মিথ্যা মামলার আসামি ও গণগ্রেফতারের অভিযোগ করেছেন বিএনপির দফতরের দায়িত্বে থাকা যুগ্মমহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। তবে এভাবে চলতে থাকলে বিএনপি ঘরে বসে থাকবে না উল্লেখ করে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, জুলুম-নির্যাতনের বিরুদ্ধে কঠোর প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে রিজভী এ হুঁশিয়ারি দেন।

ব্রিফিং উপজেলা নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশব্যাপী নেতাকর্মীদের ওপর হামলা ও নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেন রিজভী।

রিজভী অভিযোগ করেন, চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে পুলিশ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগ যৌথভাবে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ও নেতাকর্মীদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর, নির্যাতন-নিপীড়ন ও হত্যাচেষ্টা চালাচ্ছে। এটা কোনো সভ্য সমাজে চলতে পারে না। নেতাকর্মীদের নির্যাতন করে উপর্যুপরি তাদের নামেই মিথ্যা মামলা দিয়ে গণহারে গ্রেফতার করা হচ্ছে।

পিরোজপুর সদরসহ উপজেলা নির্বাচন সংশ্লিষ্ট এলাকায় বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর প্রশাসনের সরাসরি সহযোগিতায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বর্বোরচিত হামলার তীব্র নিন্দা জানান রিজভী।

তিনি বলেন, এভাবে হত্যা, গুম, অপহরণ, নির্যাতন ও হামলা-ভাঙচুর চালানো হলে বিএনপি ঘরে বসে না। মিথ্যা মামলার আসামি করে গণহারে গ্রেফতার করা সহ্য করা হবে না। এসব জুলুম-নির্যাতনের বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।

নেতাকর্মীদের ওপর প্রশাসন, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের হামলা এবং ভয়ভীতি দেখানোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান রিজভী।

ব্রিফিংয়ে রিজভী অভিযোগ করেন, বুধবার দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা’ দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ায় হয়নি।

তিনি বলেন, এভাবে প্রশ্নবিদ্ধ প্রক্রিয়ায় মামলার অভিযোগ গঠনের অর্থ খালেদা, তারেক রহমানসহ জিয়‍া পরিবার ও বিএনপিকে হয়রানি করার কুটিল ষড়যন্ত্রে লিপ্ত সরকার।

তিনি অভিযোগ করেন, সরকারের মদতেই এই ‘মিথ্যা’ মামলার অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে এখন জিয়া পরিবার ও বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করার লক্ষ্যে ‘মিথ্যা’ মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। একইসঙ্গে বিএনপি দলীয় নেতাকর্মীদের হত্যা, গুম, অপহরণ, নির্যাতন ও মিথ্যা মামলার আসামি করে গ্রেফতারের মহোৎসব চলছে।

অবিলম্বে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান রিজভী।

এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, এই মিথ্যা মামলা আইনি ও রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করবে বিএনপি।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ, বরকত উল্লাহ বুলু, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভূঁইয়া, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন ও মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা শিরিন সুলতানা প্রমুখ।

x