‘লোকাল ট্রেনের’ চালকের আসনে এবার আ’লীগ

ব্যাপক সহিংসতা, ভোট জালিয়াতি ও কেন্দ্র দখলের মধ্য দিয়ে চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। রবিবার সকাল ৮টা থেকে ৯১টি উপজেলা পরিষদে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

ভোটগ্রহণের শুরু থেকেই বিভিন্ন স্থানে সরকারি দলের সমর্থকদের সঙ্গে বিএনপির সমর্থক ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এতে বিভিন্ন স্থানে চারজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ছাড়াও সকল পক্ষের শতাধিক সমর্থক আহত হয়েছেন।

প্রথম দুই দফা নির্বাচনে নবম জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৯ দলীয় জোট সমর্থিত প্রার্থীরা এগিয়ে থাকলেও তৃতীয় দফা থেকে সরকারপক্ষ এগিয়ে যেতে থাকে। আর তৃতীয় দফার ধারাবাহিকতায় চতুর্থ দফাও সরকার সমর্থকরা এগিয়ে রয়েছেন।

ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে ৮৮টি উপজেলার। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ৪৯, বিএনপি ২৩, জামায়াত ৫ ও অন্যান্য ১১ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। অন্যান্যের মধ্যে জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী ২, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী ২, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ৫ এবং জনসংহতি সমিতির এক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী একজন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

এ ছাড়া অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার ৯টি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এখানে আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থী রেফায়াত উল্লাহ খান তোতা (প্রাপ্ত ভোট ২২২৮২) ও আমিরুল ইসলামের (প্রাপ্ত ভোট ১১৪৫২) মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে।

অন্যদিকে কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় জালভোট দেওয়ার অভিযোগে দুটি কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত করা হয়েছে। এখানে বিএনপির এটিএম নুরুল বশর চৌধুরী (প্রাপ্ত ভোট ১৫৩১২) ও জামায়াতের আ স ম শাহরিয়ার চৌধুরীর (প্রাপ্ত ভোট ১২৯৭৪) মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে।

পটুয়াখালীর দুমকিতে একই অভিযোগে পাঁচ কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত করা হয়েছে।

প্রাপ্ত ফলাফল :

কক্সবাজার : জেলার রামু উপজেলায় বিএনপির আহমেদুল হক চৌধুরী (আনারস) ৩৩৩২৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াতের ফজলুল্লাহ মো. হাসান (ঘোড়া) পেয়েছেন ২১২১২ ভোট।

কুতুবদিয়া উপজেলায় বিএনপির এটিএম নুরুল বশর চৌধুরী (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৫৩১২ ভোট। এই উপজেলায় জামায়াতের আ স ম শাহরিয়ার চৌধুরী (আনারস) পেয়েছেন ১২৯৭৪ ভোট। ২টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ জালিয়াতির অভিযোগে স্থগিত রয়েছে।

কিশোরগঞ্জ : জেলার ইটনা উপজেলায় আওয়ামী লীগের এস এম কামরুল হাসান (আনারস) ৩৩৪৫৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির চৌধুরী কামাল হোসেন (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ২৭৮৭৪ ভোট।

মিঠামইন উপজেলায় আওয়ামী লীগের অ্যাডভোকেট আবদুল শাহেদ ভূঁইয়া (আনারস) ২৬৩২৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির জাহেদুল আলম (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৮৭৩০ ভোট।

তাড়াইল উপজেলায় জাতীয় ‍পার্টির মো. কামাল উদ্দিন ভূঁইয়া (দোয়াত-কলম) ১৭৫৯২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সাহিদুজ্জামান মোস্তফা (টেলিফোন) পেয়েছেন ১৪৫১২ ভোট।

ভৈরব উপজেলায় বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মো. গিয়াস উদ্দীন (মোটরসাইকেল) ৪৬১০১ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. আরিফুল হক (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৯১০১ ভোট।

কটিয়াদী উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আব্দুল ওয়াহাব (ঘোড়া) ৫৭৭৫১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির শহিদুজ্জামান কাকন (আনারস) পেয়েছেন ৫২২৩৩ ভোট।

খুলনা : জেলার ফুলতলা উপজেলায় আওয়ামী লীগের শেখ আকরাম হোসেন (দোয়াত-কলম) ৩৪৬৮১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সরদার আলাউদ্দিন মিঠু (আনারস) পেয়েছেন ৩১৬৪৫ ভোট।

তেরখাদা উপজেলায় আওয়ামী লীগের সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু (দোয়াত-কলম) ৪৭৩৭১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এসএম মেজবাউল আলম (আনারস) পেয়েছেন ৯৮৮২ ভোট।

বটিয়াঘাটা উপজেলায় আওয়ামী লীগের আশরাফুল আলম খান (চিংড়ি মাছ) ৪০৬৮৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আমির এজাজ খান (আনারস) পেয়েছেন ৩৭৯৪৭ ভোট।

দাকোপ উপজেলায় আওয়ামী লীগের শেখ আবুল হোসেন (আনারস) ৩৪৭৪৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আবুল খয়ের খান (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৭৬০৮ ভোট।

রূপসা উপজেলায় আওয়ামী লীগের কামাল উদ্দিন বাদশা (টেলিফোন) ৪২২২৬ ভোটে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এস এম মনিরুল হাসান বাপ্পী (আনারস) পেয়েছেন ২৫৪০৭ ভোট।

গাজীপুর : কালিয়াকৈর উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেল (মোটরসাইকেল) ৫৫১৮৭ ভোটে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত মো. হেলাল উদ্দিন আহম্মদ (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৫৩৩৭৩ ভোট।

চট্টগ্রাম : জেলার বাঁশখালী উপজেলায় জামায়াতের মো. জহিরুল ইসলাম (আনারস) ৬৫৯৮২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মো. খোরশেদ আলম (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৫১৬৯০ ভোট।

আনোয়ারা উপজেলায় আওয়ামী লীগের তৌহিদুল হক চৌধুরী ৮৫১৩২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির জালাল উদ্দিন আহমেদ পেয়েছেন ৪২০৬০ ভোট।

রাউজান উপজেলায় আওয়ামী লীগের এহসানুল হায়দার চৌধুরী (দোয়াত-কলম) ১০৮০৫১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আনোয়ার হোসেন (আনারস) পেয়েছেন ১৯৫৭৬ ভোট।

ফটিকছড়ি উপজেলায় আওয়ামী লীগের এম তৌহিদুল আলম বাবু (আনারস) ৮৯২৪০ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সরোয়ার আলমগীর (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৩৩২৬৮ ভোট।

রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. আলী শাহ (দোয়াত-কলম) ৫৭২২৯ ভোটে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী কুতুব উদ্দিন বাহার (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ২৯২৫৭ ভোট।

বোয়ালখালী উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. আতাউল হক ৪৮৯১১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বদরুছ মেহের পেয়েছেন ২৬৮৮১ ভোট।

সাতকানিয়া উপজেলায় জামায়াতের জসিম উদ্দিন (মোটরসাইকেল) ৬৬৫০০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের নুরুল আবছার চৌধুরী (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ৪২৪০০ ভোট।

চুয়াডাঙ্গা : জেলার জীবননগর উপজেলায় আওয়ামী লীগের আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল (আনারস) ৬১৭২৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত সমর্থিত খলিলুর রহমান (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ১৫৬৩৩ ভোট।

ঝালকাঠি : জেলার সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত সুলতান হোসেন খান (আনারস) ৯৪২৫৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত সরদার এনামুল হক এলিন (দোয়ত-কলম) পেয়েছেন ৫৭৫৭ ভোট।

কাঁঠালিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত ফারুক সিকদার (কাপ-পিরিচ) ৩৬৫৯১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত রফিকুল ইসলাম মিরন সিকদার (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৭৯৮১ ভোট।

রাজাপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত অধ্যক্ষ মনির উজ্জামান মনির (আনারস) ৪২০৮৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত নাসিম উদ্দীন আকন (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ১৯০৮৪ ভোট।

নলছিটিতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত অ্যাডভোকেট লস্কর মো. ইউনুস (দোয়াত-কলম) ৮৭৯৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান হেলাল (আনারস) পেয়েছেন ৫৯২১ ভোট।

জয়পুরহাট : জেলার পাঁচবিবিতে জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান (আনারস) ৭৪৮৮৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আবু সাঈদ আল মাহবুব চন্দন (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৫৫২৫০ ভোট।

টাঙ্গাইল : জেলার নাগরপুর উপজেলায় বিএনপির আব্দুছ ছামাদ (ঘোড়া) ৪৩৪৮০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মো. মুলতান উদ্দিন (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ৩৩১৪১ ভোট।

মধুপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের ছরোয়ার আলম খান আবু (দোয়াত-কলম) ৭৯৭৬০ ভোট পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. জাকির হোসেন সরকার (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৪৮৫২০ ভোট।

কালিহাতী উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. মোজহারুল ইসলাম তালুকদার (মোটরসাইকেল) ৮৯০৬০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. শুকুর মাহমুদ (চিংড়ি মাছ) পেয়েছেন ৬৫৩৬০ ভোট।

ভূঞাপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. আব্দুল হালিম (দোয়াত-কলম) ৪৬৯৯৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির মো. গোলাম মোস্তফা (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ২৮৩৪৬ ভোট।

দিনাজপুর : জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় বিএনপির খুরশিদ আলম মতি (আনারস) ৪৬৪৭৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মুশফিকুর রহমান বাবুল (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৩৪৪১২ ভোট।

বোচাগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের ফরহাদ হোসেন চৌধুরী (দোয়াত-কলম) ৩০১৯৫ ভোটে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাপার অ্যাডভোকেট জুলফিকার হোসেন (আনারস) পেয়েছেন ২৪০৪৯ ভোট।

নড়াইল : সদর উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত মো. মনিরুল ইসলাম (আনারস) ৫৩৭৫৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত মো. নিজাম উদ্দিন খান নিলু (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৪৯৭৭৯ ভোট।

নাটোর : বড়াইগ্রাম উপজেলায় বিএনপির অধ্যক্ষ একরামুল আলম (ঘোড়া) ৭৪৬৯৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান (আনারস) পেয়েছেন ৬৫৩৯২ ভোট।

ঠাকুরগাঁও : জেলার পীরগঞ্জ উপজেলায় বিএনপির জিয়াউর ইসলাম জিয়া (আনারস) ৫৮৩৯৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের ইকরামুল হক (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৫৬২৭৮ ভোট।

নেত্রকোনা : জেলার মদন উপজেলায় বিএনপির এম এ হারেস (ঘোড়া) ২৪৭৮০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী রফিকুল ইসলাম (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ২০৭৫২ ভোট।

পাবনা : জেলার ফরিদপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী খলিলুর রহমান (দোয়াত-কলম) ২৭৯৬৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী জহুরুল ইসলাম বকু (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৮২২৩ ভোট।

ঈশ্বরদী উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত মোখলেছুর রহমান মিন্টু (আনারস) ৫৬৯৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী জাকারিয়া পিন্টু (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৩৮৫৮২ ভোট।

পটুয়াখালী : জেলার সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. তারিকুজ্জামান মনি (আনারস) ৬২৬২৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. শাহদাৎ হোসেন মৃধা (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ১৯২৯৪ ভোট।

গলাচিপা উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. সামসুজ্জামান লিকন (কাপ-পিরিচ) ৩৯৩১৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আবদুস সাত্তার হাওলাদার (আনারস) পেয়েছেন ৩৪৪৭১ ভোট।

মির্জাগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী আবু বকর সিদ্দিকী (কাপ-পিরিচ) ১৬৩১৭ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. শাহাবুদ্দিন নান্নু (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৪২১৫ ভোট।

বাউফল উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত মজিবুর রহমান (ঘোড়া) ১২৫৭৭০ ভোটে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী তসলিম তালুকদার (আনারস) পেয়েছেন ১৫৩৬০ ভোট।

দুমকি উপজেলায় ৫টি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের শাহজাহান সিকদার (দোয়াত-কলম), বিএনপির সাইফুল মজিদ বাহাউদ্দিন (কাপ-পিরিচ), মো. আ. ওহাব মিনার (টেলিফোন) ও জাকির হোসেন মঞ্জু (আনারস)।

বগুড়া : জেলার গাবতলী উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত মোরশেদ মিল্টন (আনারস) ৮১২৪১ ভোটে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের এ এইচ আজম খান (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৪৫২৫৭ ভোট।

বাগেরহাট : চিতলমারী উপজেলায় আওয়ামী লীগের মুজিবর রহমান শামীম (আনারস) ২০৪৯৭ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের অশোক বড়াল (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ২০১০১ ভোট।

মোল্লাহাট উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. শাহিনুল আলম ছানা (দোয়াত-কলম) ২৯৯৯১ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির শেখ হাফিজুর রহমান (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ২২৭১০ ভোট।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : আখাউড়া উপজেলায় বিএনপির মুসলিম উদ্দিন (আনারস) ২৪০২২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আবুল কাশেম (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ২১১৮৯ ভোট।

নাসিরনগর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মনিরুজ্জামান সরকার (আনারস) ৫৯২২১ ভোটে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এম এ হান্নান (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৩৮৫১৬ ভোট।

ময়মনসিংহ : হালুয়াঘাট উপজেলায় আওয়ামী লীগের ফারুক আহাম্মদ খান (আনারস) ৫৭৪১২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. আজিজুল আহসান (ঘোড়া) পেয়েছেন ৪৪৬১৬ ভোট।

মুন্সীগঞ্জ : গজারিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের রেফায়াত উল্লাহ খান তোতা (দোয়াত-কলম) ২২২৮২ ভোটে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আমিরুল ইসলাম (মোটারসাইকেল) পেয়েছেন ১১৪৫২ ভোট।

মৌলভীবাজার : সদর উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত মিজানুর রহমান মিজান (আনারস) ৪৩২৬৯ ভোটে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত মুহিবুর রহমান তরফদার (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৩১১৮৮ ভোট।

শেরপুর : নালিতাবাড়ী উপজেলায় বিএনপির একেএম মুখলেছুর রহমান রিপন (মোটরসাইকেল) ৩৩২১৩ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত মোকছেদুর রহমান লেবু (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৩০৯০৯ ভোট।

সুনামগঞ্জ : শাল্লা উপজেলায় বিএনপির গুনেন্দ্র চন্দ্র সরকার (আনারস) ২০৮২৪ ভোটে জয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগের চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মাহমুদ (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৭৫৯৪ ভোট।

ধর্মপাশায় বিএনপির আব্দুল মোতালেব খান (দোয়াত-কলম) ৩২৫৯৩৪ ভোটে জয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগের শামিম আহমদ মুরাদ (ঘোড়া) পেয়েছেন ৩১২২৫ ভোট।

ঢাকা : ধামরাই উপজেলায় বিএনপির তমিজ উদ্দিন (দোয়াত-কলম) ৯৮৩৪৯ ভোটে জয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগের গোলাম কবির মোল্লা (আনারস) পেয়েছেন ৭৪২৭৪ ভোট।

সিরাজগঞ্জ : চৌহালী উপজেলায় বিএনপির মেজর (অব.) আব্দুল্লাহ আল মামুন (দোয়াত-কলম) ২২১০৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের হযরত আলী মাস্টার (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৬৭২৮ ভোট।

হবিগঞ্জ : সদর উপজেলায় স্বতন্ত্র সৈয়দ আহমদুল হক (ঘোড়া) ৪৩২০৯ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। আওয়ামী লীগের মোতাচ্ছিরুল ইসলাম (আনারস) পেয়েছেন ৩০৯৩৫ ভোট।

আজমেরীগঞ্জে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী আতর আলী (মোটরসাইকেল) ১৬৩১১ ভোটে জয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগের মিসবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ১৩৪১৯ ভোট।

লাখাই উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুশফিউল আলম আজাদ (ঘোড়া) ১৯৩৪৩ ভোটে জয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগের আবু হাসেম মোল্লা মাসুম (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ১৮০৭৯ ভোট।

নবীগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের আলমগীর চৌধুরী (দোয়াত-কলম) ৪২০৪৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। বিএনপির মুজিবুর রহমান শেফু (চিংড়ি) পেয়েছেন ৩৩২৩১ ভোট।

কমলগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত অধ্যাপক রফিকুর রহমান (আনারস) ৪৫৬১৮ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত শামিম আহমদ চৌধুরী (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৪২৯০২ ভোট।

শ্রীমঙ্গল উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত রণধীর কুমার দেব (আনারস) ৪৮১০৬ ভোটে জয়ী হয়েছেন। বিএনপির আতাউর রহমান (ঘোড়া) পেয়েছেন ২৪৯৭৬ ভোট।

রাজশাহী : তানোর উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত এমরান আলী সরকার (মোটরসাইকলে) ৫০৪০৬ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত গোলাম রাব্বানী (আনারস) ৪৭৮৭৭ ভোট পেয়েছেন।

পুঠিয়া উপজেলায় বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম জুম্মা (ঘোড়া) ৩৬৫৬৩ ভোটে জয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী আহসানুল হক মাসুদ (দোয়াত-কলম) ৩৩৫৯১ ভোট পেয়েছেন।

বাগমারা উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত জাকিরুল ইসলাম সান্টু (ঘোড়া) ৮৭৮৫৯ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মখলেসুর রহমান মণ্ডল (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৮৩৮১১ ভোট।

পিরোজপুর : পিরোজপুর সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. মুজিবুর রহমান খালেক (আনারস) ৫০৯৯০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এলিজা জামান (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ১৬৯০৫ ভোট।

ভান্ডারিয়া উপজেলায় জাতীয় পার্টির মো. আতিকুল ইসলাম ৩৬৫৬০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির বিদ্রোহী মো. মাহিবুল হোসেন পেয়েছেন ১৬০৪৩ ভোট।

মঠবাড়িয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. আশরাফুর রহমান ১০৪৯৭০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. রুহুল আমীন দুলাল পেয়েছেন ১৩৯২১ ভোট।

জিয়ানগর উপজেলায় জামায়াত সমর্থিত মাসুদ বিন সাঈদী (দোয়াত-কলম) ২৭০৭৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত আব্দুল খালেক গাজী (আনারস) পেয়েছেন ৬৫৬৭ ভোট।

ফেনী : সোনাগাজী উপজেলায় আওয়ামী লীগের জেড এম কামরুল আনাম (টেলিফোন) ১০০৭৬৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াতের এ কে এম নাজেম ওসমানী (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৮০২১ ভোট।

ফুলগাজী উপজেলায় আওয়ামী লীগের একরামুল হক একরাম (কাপ-পিরিচ) ৩৩৩৮৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মাহতাব উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী (আনারস) পেয়েছেন ৯৫১১ ভোট।

কুমিল্লা : জেলার মেঘনা উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত আবদুস সালাম (দোয়াত-কলম) ২২৩৩৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মো. রমিজ উদ্দিন লন্ডনী (ঘোড়া) পেয়েছেন ৯৬৩৩ ভোট।

বরুড়া উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত আবদুল খালেক চৌধুরী (মোটরসাইকেল) ৫২৫৫৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া (আনারস) পেয়েছেন ৩৮৫৭৩ ভোট।

নোয়াখালী : জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলায় বিএনপির অ্যাডভোকেট আবদুর রহিম (আনারস) ৮১৯৯০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের ভিপি মোহাম্মদ উল্লাহ (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৩৯৪৯৫ ভোট।

চাঁদপুর : জেলার শাহরাস্তি উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত দেলোয়ার হোসেন মিয়াজী (আনারস) ৪৩৯৭৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মো. হুমায়ুন কবির মজুমদার (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ৩৫১৪৪ ভোট।

বান্দরবন : নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় জামায়াতের তোফাইল আহমদ (মোটরসাইকেল) ১৩১৮২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মো. শফি উল্লাহ (আনারস) পেয়েছেন ৯০৬৫ ভোট।

বরগুনা : জেলার বেতাগী উপজেলায় বিএনপির শাজাহান কবীর (দোয়াত-কলম) ২১৭৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের এ বি এম গোলাম কবির (আনারস) পেয়েছেন ১৩১৬২ ভোট।

বরিশাল : জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের গোলাম মোর্তুজা খান (আনারস) ৬৬৪৩৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী জোতিন্দ্রনাথ মিস্ত্রি (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৪৩০৪ ভোট।

উজিরপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. হাফিজুর রহমান (কাপ-পিরিচ) ৭৯৮৫৩ ভোটে উপজেলা নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আব্দুল মাজেদ তালুকদার (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ২০২১০ ভোট।

বানারীপাড়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের মো. গোলাম ফারুক (দোয়াত-কলম) ৭০৯৫৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. শাহ আলম মিয়া (আনারস) পেয়েছেন ৪৫৬৯ ভোট।

ভোলা : তজুমদ্দিন উপজেলায় আওয়ামী লীগের অদিদ উল্ল্যাহ জসিম (দোয়াত-কলম) ৪২৮৫৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফকরুল আলম জাহাঙ্গীর (দেওয়াল ঘড়ি) পেয়েছেন ১২০০৬ ভোট।

মনপুরা উপজেলায় আওয়ামী লীগের সেলিনা আক্তার চৌধুরী (আনারস) ২২৯২৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সামসুদ্দিন বাচ্চু চৌধুরী (দোয়াত-কলম, বর্জন) পেয়েছেন ১০৯৩ ভোট।

দৌলতখান উপজেলায় আওয়ামী লীগের মঞ্জুরুল আলম খান (আনারস) ৭৫৬২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির জহুরুল ইসলাম খুশবু (ঘড়ি) পেয়েছেন ৭২০০ ভোট।

রাঙ্গামাটি : জুড়াছড়ি উপজেলায় চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি সমর্থিত (সন্তু লারমা) প্রার্থী উদয় জয় চাকমা (আনারস) ৬২৫১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী সুরেশ কুমার চাকমা (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ২৮৩৭ ভোট।

ঝিনাইদহ : জেলার হরিণাকুণ্ডু উপজেলায় বিএনপির আব্দুল মজিদ (মোটরসাইকেল) ৪৯০৫১ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের রবিউল ইসলাম (আনারস) পেয়েছেন ৩৬৭২৯ ভোট।

কুষ্টিয়া : জেলার দৌলতপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত ফিরোজ আল মামুন (হেলিকপ্টার) ৭৩০৮৮ ভোটে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. শহিদুল ইসলাম (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৬০১৫৪ ভোট।

যশোর : জেলার কেশবপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত এইচ এম আমির হোসেন (মোটরসাইকেল) ৫৬৪৩৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত সমর্থিত মাওলানা আবদুস সামাদ (দোয়াত-কলম) পেয়েছেন ৩৫১৫২ ভোট।

সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত মো. শাহীন চাকলাদার (মোটরসাইকেল) ১৮৩৮৮৫ ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। বিএনপি সমর্থিত মো. গোলাম রেজা দুলু (আনারস) পেয়েছেন ৯২৫৯৫ ভোট।

সাতক্ষীরা : কলারোয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের ফিরোজ আহমেদ (আনারস) ৮০৪৪৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াতের শহীদুল ইসলাম মুকুল (কাপ-পিরিচ) পেয়েছেন ৩০৪৪১ ভোট।

সিলেট : সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের আশফাক আহমদ (কাপ-পিরিচ) ৪৫১৪৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী আবুল কাহের শামীম (আনারস) পেয়েছেন ৩০০৯১ ভোট।

কানাইঘাট উপজেলায় বিএনপির আশিক উদ্দিন চৌধুরী (মোটরসাইকেল) ২৬৭৫৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের নিজাম উদ্দিন আল নিজাম (ঘোড়া) পেয়েছেন ২০৩৪৬ ভোট।

x