Skip to content

বিশ্বকাপ চলাকালেই বিদ্যুৎ বিভ্রাট, নিভে গেল ফ্লাড লাইট

প্রস্তুতি ম্যাচের পর এবার বিশ্বকাপের মুল আসর চলাকালেই নিভে গেল ফ্লাড লাইট। এ ঘটনায় ১০ মিনিট খেলা বন্ধ রাখা হয়। সোমবার নেদারল্যান্ড-শ্রীলংকার ম্যাচ চলাকালীন জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় পিডিবি ও স্টেডিয়ামের বৈদ্যুতিক কর্মকর্তারা পরস্পর পরস্পরের উপর দায় ছাপিয়েছেন।

শ্রীলংকা-নেদারল্যান্ডসের দ্বিতীয় ওভারের খেলা চলছিল। পর পর দু’ উইকেট তুলে নেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। হ্যাটট্রিক চান্স। সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিট। ঠিক সেই মুহুর্তেই ফ্লাড লাইটের আলো নিভে গেল। খেলা নিয়মিত রাখার জন্য পর্যাপ্ত আলো না থাকায় খেলা বন্ধ রাখে আম্পায়ার। ১০ মিনিট পর ৭টা ৫৫ মিনিটে আবার সবগুলো ফ্লাড লাইট জ্বলে উঠলে খেলা শুরু হয়।

জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের সিনিয়র বৈদ্যুতিক কর্মকর্তা মো. সালেক বলেন, পিডিবি’র তিনটি লাইন থেকে ফ্লাড লাইটগুলো জ্বালানো হয়। একটি লাইনে ত্রিশ সেকেন্ডের জন্য বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটায় ওই লাইনের ফ্লাড লাইটগুলো বন্ধ হয়ে যায়। ফ্লাড লাইট একবার বন্ধ হলে জ্বলতে ১০মিনিট সময় নেয়।

তবে বাংলাদেশ উন্নয়ন বোর্ডের বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ (পাহাড়তলী) নির্বাহী প্রকৌশলী কামাল হোসেন বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কথা অস্বীকার করে বাংলানিউজকে বলেন, ‘আমাদের সরবরাহে কোনো সমস্যা ছিল না। এটা ওদের আভ্যন্তরীণ সমস্যা।’

তবে বিসিবি’র একাধিক কর্মকর্তা বলেন, পিডিবি’র কর্মকর্তারা নিজেদের বাঁচানোর জন্য মিথ্যাচার করছে।

এর আগে গত ১২ মার্চ আফগানিস্তান-নেদারল্যান্ডসের প্রস্তুতি ম্যাচ চলাকালীন দু’দফা বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে দ্বিতীয় দফায় দিনের আলো কম থাকায় প্রায় বিশ মিনিট খেলা বন্ধ রাখা হয়।

মন্ত্রীর নির্দেশ, আয়োজকদের সতর্কতার এমন বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ঘটনা ঘটায় বিস্ময় প্রকাশ করেছে বিসিবি কর্মকর্তারা।

x