Skip to content

মরুর বুকে কাদার শহর!

ইয়েমেনের মরুর বুকে আশ্চর্য এক নগরী শিবাম। বিষয়টি আশ্চর্য হওয়ার মতোই। অবাক করা বিষয় হলেও সত্য, এখানকার বহুতল ভবনগুলো তৈরি কাদা দিয়ে!

স্থাপত্যশৈলী এবং নগর পরিকল্পনার জন্য প্রথম এ নগরীতে পা রেখে আমেরিকার কোনো শহর বলে ভুল হতে পারে। এজন্যই হয়তো শহরটিকে বলা হয় মরুভূমির ‘ম্যানহাটন’।

ফিরে যাওয়া যাক ১৬০০ খ্রিস্টাব্দে। আকাশচুম্বী অরক্ষিত এই নগরী প্রলয়ংকারী এক বন্যায় ধ্বংস হয়ে যায়। তারপর নগরীর ঘরবাড়ি নির্মিত হয় পাহাড়ের ওপর।

রোদে শুকানো মাটি দিয়ে নির্মিত ভবনগুলো সাধারণত সাত তলা পর্যন্ত হয়। ভবনগুলো এমনভাবে নির্মিত যার উপাদান প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে সুন্দর এ শহরকে সুরক্ষা করতে পারবে।

শিবাম নগরীর অবস্থান এশিয়া, আফ্রিকা ও ইউরোপের কেন্দ্রে। মসলা ব্যবসায়ীদের ব্যবসা পরিচালনার জন্য স্থানটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখানকার ভবনগুলোর বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর দেয়াল অনেক সময় ক্ষয়ে যায়। তখন এর স্থায়িত্ব বাড়ানো ও শক্তিশালী করার জন্য ভালো মানের কাদার আস্তরণ দিয়ে একে মেরামত করতে হয়।

বর্তমানে শিবাম নগরীতে বসবাস করেন প্রায় সাত হাজার মানুষ। এখানে রয়েছে প্রচুর সংখ্যক ছাগল, যারা নগরীর অলিগলি সবসময় ধূলিমলিন করে রাখে। ইতোমধ্যে নান্দনিক এ শহরকে ঘোষণা করা হয়েছে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট হিসেবে।

x