Skip to content

ভারত থেকে বছরে ১০ লাখ মেট্রিক টন ডিজেল আসবে

পাইপলাইনের মাধ্যমে ভারত থেকে ডিজেল আমদানি করবে বাংলাদেশ। প্রাথমিকভাবে বছরে ১০ লাখ মেট্রিক টন ডিজেল আমদানির লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জ্বালানি বিভাগের এক বৈঠকে ভারত থেকে সরাসরি ডিজেল আনার বিষয়ে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

জ্বালানি বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, এরইমধ্যে ১৩০ কিলোমিটার পাইপলাইন স্থাপনের সম্ভাব্যতা যাচাই শুরু হয়েছে। ভারত থেকে তেল আমদানি করতে হলে শিলিগুড়ি থেকে দিনাজপুর পর্যন্ত ১৩০ কিলোমিটার পাইপলাইন স্থাপন করা হবে। এজন্য সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে দুই হাজার কোটি রুপি। আগামী ৩ মাসের মধ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই শেষ করার তাগিদ দিয়েছে জ্বালানি বিভাগ।

বাংলাদেশ ও নেপালে তেল রপ্তানির উদ্দেশ্যে আসামের গোলাহাট জেলায় অবস্থিত নুমলীগড় তেল শোধনাগারকে রপ্তানি কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্ডিয়ান অয়েল।

নুমলীগড় রিফাইনারি থেকে ডিজেল আমদানি বিষয়ে আলোচনা চলছে। শিগগিরই ইন্ডিয়ান অয়েল কোম্পানির একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফর করবে। ওই সময়ে সরকারের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই হবে।

বাংলাদেশে প্রতিবছর ৩০ লাখ মেট্রিকটন ডিজেল প্রয়োজন হয়। ইস্টার্ন রিফাইনারি অপরিশোধিত জ্বালানি তেল পরিশোধন করে ১৫ লাখ মেট্রিকটন ডিজেল উৎপাদন করে। অবশিষ্ট ডিজেল সরাসরি আমদানি করা হয়।

পরিশোধিত ডিজেল আমদানির ক্ষেত্রে ব্যয় তুলনামূলকভাবে বেশি পড়ে। এছাড়া জ্বালানি তেল আমদানিতে নানা ধরনের ঝুঁকি থাকে। পাইপ লাইনে তেল আমদানি করাকে নিরাপদ মনে করছে জ্বালানি বিভাগ।

x