Skip to content

‘নিউজউইক-এ বাংলাদেশ – মুক্তিযুদ্ধ, বিজয় এবং তারপর’

আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন সাংবাদিক হাসান শাহরিয়ার একজন প্রতিষ্ঠিত সাংবাদিক, কলাম লেখক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক। তিনি আমেরিকার প্রখ্যাত আন্তর্জাতিক সাময়িকী ‘নিউজ উইক’ এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন তিন দশকেরও বেশি সময়।

এই সাময়িকীতে তাঁর অজস্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এই সাময়িকীতে তাঁর প্রতিবেদন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের পর পরই তার প্রতিবেদন ‘নিউজ উইক-এ বাংলাদেশ – মুক্তিযুদ্ধ বিজয় এবং তারপর’ একটি তথ্যসমৃদ্ধ বই প্রকাশিত হয়েছে। শিগগিরই বইটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশিত হবে।

২১৬ পৃষ্ঠার বইটিকে ছয়টি অধ্যায়ে বিভক্ত করা হয়েছে। অধ্যায়গুলো হচ্ছে ‘মুক্তিযুদ্ধ ও বিজয়’, ‘রাজনীতি’, ‘অর্থনীতি’, ‘দুর্যোগ’, ‘বিবিধ ও বিশ্ববলয়ে বাংলাদেশ।’

বইটিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রাম, স্বাধীনতা যুদ্ধ, নিরীহ বাঙালিদের উপর পাকিস্তানী সেনা সদস্যদের নিপীড়ন-অত্যাচার, জেনারেল টিক্কা খানের নেতৃত্বে হত্যাযজ্ঞের রিপোর্ট ও পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট জেনারেল ইয়াহিয়া খান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, বাংলাদেশের অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নজরুল ইসলাম ও প্রধামন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমানের সাাৎকার রয়েছে।

এই বইটির ভূমিকা লিখেছেন বিশ্বখ্যাত সাংবাদিক, নিউজ উইক-র সিনিয়র বৈদেশিক সংবাদদাতা টনি কিফটন। বইয়ে ‘হাসান শাহরিয়ার’ শীর্ষক নামে একটি আলেখ্য লিখেছেন বাংলাদেশের খ্যাতনামা বৈদেশিক সংবাদদাতা ফরিদ হোসেন (এপি’র ব্যুরো চীফ)।

দীর্ঘদিন পূর্বের এই রিপোর্টগুলো একত্র করে বই আকারে প্রকাশ করে হাসান শাহরিয়ার এক বিস্ময়কর কর্ম সম্পাদন করেছেন বলে বইয়ের প্রকাশক মোস্তফা সেলিম মন্তব্য করেছেন। ফরিদ হোসেন বলেছেন, বইটি তথ্যসমৃদ্ধ ছাড়াও একটি ঐতিহাসিক দলিল।

২১৬ পৃষ্ঠার এই বইয়ের সুন্দর এবং মানানসই প্রচ্ছদ করেছেন সুনামগঞ্জেরই এক প্রখ্যাত প্রচ্ছদশিল্পী, ছড়াকার, লেখক ধ্র“ব এষ। লেখক বইটি তাঁর মহীয়সী জননী মরহুমা শফিকুন্নেছা চৌধুরীর উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করেছেন। ঢাকার সানজানা প্রিন্টার্স, ৮১/১ নয়াপল্টন থেকে বইটি মুদ্রিত হয়েছে। বইটির মূল্য ১০০০ (এক হাজার টাকা)।

বাংলাদেশের সাংবাদিকতা অঙ্গণে হাসান শাহরিয়ার একটি সুপরিচিত নাম। তিনি ঢাকার দৈনিক ‘ইত্তেফাক’ এর সংবাদদাতা, চীফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি ও নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে অত্যন্ত সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি চট্টগ্রামের দৈনিক ‘পিপলস ভিউ’ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ছিলেন।

তিনি করাচীর মর্নিং নিউজ, ইভনিং স্টার ও ‘ডন’ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি দুবাই-এর ‘খালিজ টাইমস’ ও ভারতের ‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’, ‘এশিয়ান এজ’ এবং ‘ ডেকান হেরাল্ডের প্রতিনিধি ছিলেন। তিনি জাতীয় প্রেসকাব ও বৈদেশিক সংবাদদাতা সমিতির সাবেক সভাপতি। তিনি কমনওয়েলথ প্রেস এসোসিয়েশন এর (সিজেএ) সভাপতি।

হাসান শাহরিয়ারের পিতা ছিলেন প্রখ্যাত সাংবাদিক ও রাজনৈতিক নেতা মকবুল হোসেন চৌধুরী। তিনি কলকাতার দৈনিক ‘সোলতান’ সিলেটের ‘যুগবাণী’ ও ‘সিলেট পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন।

১৯৩৭ সালে তিনি তদানীন্তন আসামের এমএলএ নির্বাচিত হন। তিনি হুইপ হিসেবে ও দায়িত্ব পালন করেন। আইনজীবী-কলামিস্ট হোসেন তওফিক চৌধুরী শাহরিয়ারের অগ্রজ।

x