Skip to content

‘সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা ভোট ডাকাতির উৎসব শুরু করেছে’

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমদ বলেছেন, উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রবিবার রাত থেকেই দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রশাসনের সহযোগিতায় সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা ভোট ডাকাতি ও কেন্দ্র দখলের উৎসব শুরু করেছে। গত কয়েক দিনে আমাদের আশঙ্কা প্রতিটি বর্ণে প্রমাণিত হয়েছে। নির্বাচনকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কেনাবেচা্ হয়ে ভোটারদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে।

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সোমবার সকাল ১১টায় চলমান উপজেলা নির্বাচন নিয়ে দলের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

‘বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া নাকে খত দিয়ে উপজেলা নির্বাচনে এসেছেন’- নির্বাচন কমিশনার মো. আব্দুল মোবারকের এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, প্রভুর অন্নে পালিত কলাগাছ মার্কা নির্বাচন কমিশন নিজের বিবেক দিয়ে চালিত হতে পারে না, সংবিধান তাদের যতেই ক্ষমতা দিক না কেন।

তিনি বলেন, ‘মোবারকের চাকরিকালীন সময়ে প্রকাশ্যে তিনি মুজিব কোর্ট পড়ে অফিস করতেন। কিন্তু কমিশনে যোগ দেওয়ার পর মানুষ তার কাছ থেকে ন্যূনতম নিরপেক্ষতা আশা করেছিল। কিন্তু কথায় বলে ঢেকি স্বর্গে গেলেও ধান ভানে। কলা গাছ মার্কা লোকদের কাছ থেকে বিবেক ও ব্যক্তিত্ব আশা করা ভুল। তার এ বক্তব্যে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে বিএনপি। একই সঙ্গে তার এই অশালীন বক্তব্যের কারণে প্রকাশ্যে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।’

রিজভী বলেন, ‘বহু সংগ্রামের আগুনে পোড়া বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই ফ্যাসিবাদী স্বৈরাচারের পতন ঘটাবে।’

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব সালাউদ্দিন আহমদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনিসহ অন্যান্য নেতারা।

x