ছাতকে আরো দুই প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি

সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার ধারণ ও ভুই গাঁও গ্রামে বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে দুই প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।
ডাকাতরা নগদ টাকা, মোবাইল ফোন ও স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালপত্র লুটে নিয়ে গেছে।
এসময় ডাকাতের হামলায় শিশু, স্কুল শিক্ষার্থীসহ ৬ জন আহত হয়েছে। আহতদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহতরা হচ্ছেন, ধারণ গ্রামের সৌদি প্রবাসী রতন মিয়ার ভাবী রানী বেগম(৪০), স্কুল পড়ায়াছে ভাইয়ের ছেলে ফয়সল(১৭) ও মেয়ে আমেনা বেগম(১৪)। একই উপজেলাল ভুই গাঁও গ্রামের বৃটেন প্রবাসী বড় ভাই আমিরুল ইসলাম(৪৫), তার স্ত্রী শেফালী বেগম (৩৫) ও আড়াই বছরের শিমু কণ্যা মাফিজা।

ফয়সল ও মেয়ে আমেনা বেগম উপজেলার নতুন বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদের গাঁও ইউনিয়নের ধারণ গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী রতন মিয়ার এবং একই উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ভুইগাঁও গ্রামের বৃটেন প্রবাসী আনছার আলীর বাড়িতে এ ডাকাতি সংঘটিত হয়।

ডাকাতের হামলায় গুরুতর আহত সৌদি প্রবাসীর বড় ভাইয়ের স্ত্রী, স্কুল পড়ায়া ছেলে ও মেয়ে এবং বৃটেন প্রবাসীর বড় ভাই,তার স্ত্রী ও আড়াই বছরের শিশু কণ্যা আহত হয়।

স্থানীয়রা জানান, রাত ২ টার দিকে উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদের গাঁও ইউনিয়নের ধারণ গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী রতন মিয়ার বাড়িতে দরজা ভেঙ্গে ১৫-২০ জনের মুখোশধারী একদল ডাকাত বসত ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্রে মুখে সবাইকে জিম্মি করে। এ
সময় চিৎকার দিলে প্রবাসীর ভাবী, ভাইয়ের ছেলে ও মেয়েকে মারপিট করে। এতে তারা গুরুতর আহত হয়।

অপরদিকে রাত আড়াইটার দিকে ধারণ গ্রামের পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ভুইগাঁ গ্রামের বৃটেন প্রবাসী আনছার আলীর বাড়িতে একই কায়দায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

ডাকাতেরে মারপিঠে প্রবাসীর বড় ভাই, তার স্ত্রী ও শিশু কণ্যা আহত হয়।

ডাকাতরা সৌদি প্রবাসীর বাড়ি থেকে ৩ ভরি স্বর্ণ, ও নগদ ২০ হাজার টাকা কাপড় চোপরসহ পৌনে ২ লাখ টাকার মালামাল লটে নেয়। অপরদিকে বৃটেন প্রবাসীর বাড়ি থেকে ৭ ভরি স্বর্ণ, ২ টি মোবাইল ফোন ও নগদ সাড়ে ৪ লাখ টাকাসহ প্রায় ৮ লাখ টাকার মারামাল লুটে নেয়।

ছাতক থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) শাহজালাল মুন্সি বিসয়টি নিশ্চিত করে সুনামগঞ্জ মিররকে জানন, ঘটনাটি ডাকাটিত নয়, গ্রাম্য বিষয় নিয়ে ঘটেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানে হয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে মঙ্গলবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে ১৫-২০ জনের একদল মুখোশধারী ডাকাত উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের বদিগাঁও গ্রামের বৃটেন প্রবাসী সিরাজুল ইসলামের বাড়ির সামনের দরজার ছিটকিনি ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে। এসময় বাড়ির সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতরা স্টিলের আলমিরার চাবি নিয়ে নেয়।

পরে আলমিরা খুলে ৬০ হাজার টাকা, ২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, একটি ডেল ল্যাপটপ ও আইফোনসহ বিভিন্ন ব্যান্ডেট আটটি মোবাইল ফোন লুটে নেয়।

সোমবার দিনগত রাতে একই উপজেলার চরমহল্লা ইউনিয়নের চরচৌরাই (আসাখাচর) গ্রামের বৃটেন প্রবাসী নজরুল ইসলামের বাড়িতে একই কায়দায় ডাকাতি সংঘটিত হয়। ডাকাতরা ওই বাড়ি থেকে চার হাজার পাউন্ড, নগদ দেড় লাখ টাকা ও ১৯ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়।

x