Skip to content

‘আমার কৈশোর হাসে জুবিলীর জানালায়’

সুনামগঞ্জের কৃতি সন্তান, কবি ও গবেষক, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষাসচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেছেন, আমার স্কুলজীবনের প্রথম দিনটির কথা এখনো মনে পড়ে। লাল টিনের ছাদ, টানা পাখা, দীর্ঘ বারান্দা, উদার উঠোন মাঠ, সুরমা নদীর বাঁকানো গভীর সব ছাপিয়ে স্কুল জীবনের সেসব রঙ্গীন দিনগুলো আমায় আজো আন্দোলিত করে।

শনিবার দুপুর ৩টায় সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে তাঁকে দেয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তিনি বলেন, আমার কৈশোরের সব স্মৃতি যেন আজো জুবিলীর জানালায় দেখতে পাচ্ছি। হলরুমে বসা প্রত্যেক ক্ষুদে শিক্ষার্থীর মাঝে নিজেকে খুঁজে পাচ্ছি।

ছাত্রদের উদ্দেশ্যে ড. সাদিক বলেন, আমিও অতি সাধারণ এক ছাত্র ছিলাম। জুবিলী অনেক কীর্তিমানের জন্ম দিয়েছে, আমি আজ শিক্ষাসচিব হলেও এসব কীর্তিমানদের ভীড়ে আমি খুবই সামান্য একজন মানুষ।

এসময় তিনি আরো বলেন, তোমরা সবাই মা-বাবাকে সম্মান করো, ভালবেসো। শিক্ষককে শ্রদ্ধা করো। কারণ, গুরুজনদের সম্মান না করলে কখনোই বড় হওয়া যায় না। মা-বাবার কথা না শুনলে কখনোই ভাল মানুষ হওয়া যায় না।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ ইসমাইল হোসেনের সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও তথ্যপ্রযুক্তি) ড. আহমেদ উল্লাহ এবং সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনন্ত কুমার সিংহ।

পরে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জুবিলী স্কুল নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ আব্দুল মকদ্দুছ রচিত ‘আমাদের বিদ্যালয় আমাদের মান’ গানটি গেয়ে শোনায়। গানে সুর করেন শাহরিয়ার আলম রাহী।

x