ড. সাদিকের বাবা-মায়ের নামের স্কুলের উদ্বোধন

শিক্ষা সচিব ড. মোহাম্মদ সদিকের বাবা-মায়ের নামে ধারারগাঁওয়ে মাসতুরা-মবশ্বির সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছে। শনিবার বেলা ১১ টায় সুফি কবি মকরম শাহ্ নতুন এই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিক্ষা সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, ড. সাদিকের সহধর্মীণী কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ জেসমিন আরা বেগম, সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ড. আহমেদ উল্লাহ্, মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান, আবু সুফিয়ান, সাংবাদিক আইনুল ইসলাম বাবলু, পঙ্কজ দে, খলিল রহমান, অ্যাডভোকেট আব্দুর রইছ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সাজিদুর রহমান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উজ্জ্বল চন্দ্র শীল বক্তব্য রাখেন।

এসময় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহসিনা বেগম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বরকত, ইউপি সদস্য আবু তাহের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ড. মোহাম্মদ সাদিক তাঁর বক্তব্যে শৈশবের স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘পাঠশালায় যখন পড়তাম সেসময় কাঁদা-পানিতে পাঁয়ে হেঁটে বাবার কোলে করে স্কুলে যেতাম, কৈশোরেও অতিকষ্টে স্কুলে গিয়েছি, কোমর সমান পানি পাড় হয়ে যেতে হতো, দুই সেট কাপড় নিয়ে যেতে হতো, ভিজে যাওয়া এক সেট কাপড় স্কুলের পাশে কোথাও রেখে অন্য সেট পড়ে ক্লাস করতাম।

আবেগাপ্লুত হয়ে তিনি বলেন, ‘আমি নিম্নবিত্ত পরিবারের সন্তান ছিলাম, অসুস্থ মায়ের ওষুধের টাকায় আমার পড়াশুনা হয়েছে। এজন্যই সরকারের ১৫০০ নতুন সরকারী স্কুল প্রকল্পে আমি আমার বাবা-মা’র স্মৃতি রক্ষার জন্য এবং গ্রামের শিশুদের দুর্দশা লাঘবের জন্য বাড়িতে থাকার ঘরটি ছাড়া সামনের ৩০ শতক জায়গাই স্কুলের জন্য দিয়েছি। স্কুলটি গ্রামবাসীর, আমার বাবা-মা’র নামটি শুধু লাগানো হয়েছে। ’

ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, ‘সুনামগঞ্জ শহরতলির ধারারগাঁও আমার একমাত্র ঠিকানা, ঢাকায় আমার কোন বাড়ি নেই।’ স্থানীয় লোকজনদের উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, ‘আপনাদের হৃদয়ই আমার বাড়ি।’

x