Skip to content

ভ্যাট ইজ কিং, প্রণোদনা ডেঞ্জারাস গেম

মূল্য সংযোজন করের (ভ্যাট) প্রশংসা আর প্রণোদনার সমালোচনা করলেন অর্থ এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।

তিনি বলেছেন, ভ্যাট ইজ দ্য কিং। এটাকে মানতে হবে। প্রণোদনা ইজ এ ডেঞ্জারাস গেম। প্রণোদনা দেওয়ার সময় চিন্তা করতে হবে এর রিটার্ন কী পাবো।

বুধবার সচিবালয়ে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অব বাংলাদেশ (আইবিএফবি) এর নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এক বৈঠকে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আইবিএফবি’র পক্ষ থেকে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) এর ব্যাপক বিস্তৃতি ও এর কার্যকরী ব্যবহারের মাধ্যমে সরকারি আয় বাড়ানোর আহ্বান জানানো হয়।

জবাবে অর্থ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভ্যাট অফুরন্ত সম্পদ। ধীর ধীরে এটা বাঘ বা সিংহে পরিণত হয়ে যাবে। ভ্যাট ইজ দ্য কিং। এটাকে মানতে হবে। এর প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।

বৈঠকে পোশাক ও পর্যটন খাত, অটো রাইস মিলের ক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে আর্থিক সুবিধা তথা প্রণোদনা চান উদ্যোক্তারা।

উদ্যোক্তারা বলেন, দীর্ঘ রাজনৈতিক অস্থিরতায় পোশাকখাতসহ বিভিন্ন সেক্টরে ক্ষতির কারণে ব্যবসায়ীরা এখনও পুষিয়ে উঠতে পারেনি। সামাজিক লাভ বিবেচনায় নিয়ে সংশ্লিষ্ট মালিক পক্ষকে আর্থিক সুবিধা প্রদান করা যেতে পারে।

এ প্রসঙ্গে এম এ মান্নান বলেন, প্রণোদনা ইজ এ ডেঞ্জারাস গেম। প্রণোদনা দেওয়ার সময় সাবধানে দিতে হবে। এর রিটার্ন পাব কি না- তা চিন্তা করতে হবে। আমরা প্রণোদনা দেব তবে সাবধানে দিতে হবে।

উচ্চ সুধের হারের কারণে দেশের শিল্প বাধাগ্রস্ত হচ্ছে দাবি করে আইবিএফবি’র পক্ষ থেকে ব্যবসায়ীদের বিগত দিনের সুধ মওকুফ এবং ব্যাংক ঋণের সুধের হার কমিয়ে সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ নির্ধারণ; কৃষিভিত্তিক শিল্পসমূহের জন্য বিশেষায়িত সুদের হার প্রবর্তন; ধান, চাল উৎপাদকের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত; সকল ক্ষেত্রে অটোমেশন চালু; জেলা বাজেট প্রণয়ণসহ বিভিন্ন দাবি জানানো হয়।

এম এ মান্নান বলেন, ইতিমধ্যে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন এবার সাতটি বিভাগীয় জেলায় বাজেট দেওয়া হবে। আর ঢাকা বিভাগীয় বাজেট দেওয়া হবে টাঙ্গাইলে।

কৃষিতে বিশাল পরিবর্তন এসেছে জানিয়ে তিনি বলেন, শুধু চাল ডাল নয়, নানা ধরনের সবজির উৎপাদন বেড়েছে। কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে সরকার সচেতন। কয়েকদিনের মধ্যে কৃষক বোরো ধান কাটা শুরু করবে। ইতিমধ্যে বোরো সংগ্রহ মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি কেজি চাল ৩১ টাকা এবং ধান ২৮ টাকায় কেনা হবে।

বর্তমান সরকারকে অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন ও ব্যবসাবান্ধব উল্লেখ করে অর্থ প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ দেশের ব্যাপক জনগণের মধ্যে ইতিবাচক ধারণা এসেছে। আগামীতে এই ইতিবাচক প্রবণতা থাকবে। আমাদের কাজ নিরাপদ স্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে দেওয়া।

আইবিএফবি’র চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমানের নেতৃতত্বে বৈঠকে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

x