ওসমানী বিমানবন্দরে অগ্নিনির্বাপন মহড়া

সিলেট এম এ জি ওসমানী বিমানবন্দরে অগ্নিনির্বাপন মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে এগারটায় এ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।

মহড়া শেষে সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মাহমুদ হোসেন।

তিনি বলেন, একটি বিমান দুর্ঘটনায় মানুষের জীবন ঘনিষ্টভাবে জড়িত থাকে। তাই এ মহড়া বিমানবন্দর সংশ্লিষ্টদের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় ছিলো। প্রতি দু’বছর পরপর হওয়ার কথা থাকলেও সিলেটে এটাই প্রথম মহড়া। আগামীতে প্রতি বছর এধরনের মহড়া হওয়া প্রয়োজন।

তিনি আরো বলেন, সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরের আন্তর্জাতিক মান বৃদ্ধিতেও এ মহড়া প্রয়োজন ছিলো। এ মহড়ার মধ্য দিয়ে বিমানবন্দরে কর্তব্যরতদের কাজের মান আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। আগামী দু’চার বছরের মধ্যে এ বিমানবন্দরের গুরুত্ব অনেক বেড়ে যাবে। পুরো বাংলাদেশের জন্য বিমানবন্দরটি গর্বের বিষয় হয়ে দাঁড়াবে।

সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরের পরিচালক হাফিজ আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী জালালাবাদ ক্যান্টনম্যান্ট, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ, বাংলাদেশ বিমানবাহিনী, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৯), বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সিলেট অঞ্চল, সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সিভিল সার্জন সিলেট, ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স, সিলেট ক্যাডেট কলেজ, সিভিল অ্যাভিয়েশনসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত সোমবার বিমানবন্দরের অভ্যন্তরে মহড়া উপলক্ষে রিহার্সেল ও প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

x