Skip to content

শরীকদের আরও সক্রিয় হওয়ার আহ্বান খালেদার

১৯ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বৈঠক কোনো গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি ঘোষণা ছাড়াই শেষ হয়েছে। তবে বৈঠকে ১৯ দলীয় জোটের শরীকদলগুলোকে ভবিষ্যতের আন্দোলনে আরও সক্রিয় ও উপযোগী হয়ে অংশ নেয়ার তাগিদ দেন খালেদা।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার পর বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুরু হয়ে এ বৈঠক শেষ হয় রাত পৌনে বারোটায়।

বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি-এলডিপির চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, জাতীয় পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমদ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি-বিজেপির চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ, ইসলামী ঐক্যজোটের সভাপতি আব্দুল লতিফ নেজামী, খেলাফত মজলিশের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. ইসহাক, লেবার পার্টি বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ইসলামিক পার্টির সভাপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল মবিন, ন্যাপ-ভাসানীর সভাপতি জেবেল রহমান গণি, জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী সদস্য আব্দুল হালিম, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সভাপতি শফিউল আলম প্রধান ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মর্তুজা, মুসলিম লীগের সভাপতি এএইচএম কামরুজ্জামান।

বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে ভবিষ্যত কর্মসূচি নির্ধারণ, উপজেলা নির্বাচনের ফল বিশ্লেষণ, তিস্তা অভিমুখে লংমার্চ কর্মসূচি এবং ভারতে অনুষ্ঠেয় লোকসভা নির্বাচন পর্যবেক্ষণসহ বিভিন্ন বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া শরীক দলগুলোর নেতাকর্মীদের আরো সক্রিয়ভাবে ভবিষ্যতের আন্দোলনে অংশ নেয়ার বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয় বলে জানা গেছে।

বৈঠকে বেলার নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দা রিজওয়ানা হাসানের স্বামী আবুবকর সিদ্দিকের অপহরণের নিন্দা জানান জোটের শীর্ষ নেতারা। তারা এ ঘটনায় ব্যর্থতার জন্য সরকারকে দায়ী করেন।

এছাড়া বৈঠকে ১৯ দলের জেলা সফর ও বিভাগীয় শহরগুলোতে মুক্তিযোদ্ধ‍া সমাবেশ এবং আসন্ন ১৯ দলীয় জোটের লংমার্চ কর্মসূচি নিয়েও আলোচনা হয় বলে জানা গেছে।

x