Skip to content

কোম্পানীগঞ্জে ইউএনও-ওসিসহ আহত ২০

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে অবৈধ পাথর উত্তোলকারীদের হামলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পুলিশের ওসিসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার টুকেরবাজার সংলগ্ন বউবাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ ১৪ রাউন্ড গুলি ছুড়ে হামলাকারীদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে দেশের সর্ববৃহৎ পাথর কোয়ারি থেকে সরকারি দলের কতিপয় নেতা অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করে আসছে। তারা পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করে কোয়ারির যত্রতত্র খোঁড়াখুঁড়ি করে সংরক্ষিত রোপওয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ভোলাগঞ্জ রোপওয়ের সংরক্ষিত এলাকায় সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন।

পাশাপাশি রোপওয়ে এলাকার বাইরে যত্রতত্র খোঁড়াখুঁড়ির দায়ে মঙ্গলবার সকাল থেকে পরিবেশ অধিদফতরের নেতৃত্বে যৌথ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে কোম্পানীগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ বিন ইকরাম, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন ও পরিবেশ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান অংশ নেন।

তারা কোয়ারি এলাকায় পরিবেশ ধ্বংস করে পাথর উত্তোলনের অভিযোগে প্রায় ৩৫টি বোমা মেশিন (পাথর উত্তোলনের জন্য এক ধরনের ইঞ্জিনচালিত যন্ত্র) ধ্বংস করেন।

অভিযান শেষে ফেরার পথে বিকেল সোয়া ৩টার দিকে টুকেরবাজার সংলগ্ন বউবাজার এলাকায় কয়েকশ লোক সড়ক অবরোধ করে। তারা কোয়ারিতে অভিযানের প্রতিবাদে ইউএনও-ওসির গাড়িবহরে হামলা চালায়। বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এতে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ বিন ইকরাম, ওসি দেলোয়ার হোসেনসহ আরও আট পুলিশ সদস্য আহত হন। এ ছাড়া অভিযানকারী দলের দুটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ সময় পুলিশ হামলা ঠেকাতে গুলি ছুড়লে হামলাকারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়ে। এতে কোম্পানীগঞ্জের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াকুব আলীর ছোট ভাই মোশাররফসহ অন্তত আরও ১০ জন আহত হয়েছেন। মোশাররফসহ আহত কয়েকজনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন, কোয়ারি এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি ও যৌথবাহিনীর অভিযানের কারণে পাথরখেকো চক্র ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। তারা বউবাজার এলাকায় অভিযানকারী দলের ওপর হামলা চালায়। এতে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ বিন ইকরাম, ওসি নিজেসহ ১০ জন আহত হন। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

x