Skip to content

অভিবাসীদের উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ ৫৮ দেশ

অভিবাসীদের উন্নয়নের ক্ষেত্রে একমত হয়েছেন ৫৮ দেশের প্রতিনিধি। প্রতিনিধিরা মনে করেন, অভিবাসীরা উন্নয়নের একটি অংশ এবং এ ক্ষেত্রে দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতামূলক সর্ম্পক থাকতে হবে।

অভিবাসী বিষয়ে বৈশ্বিক বিশেষজ্ঞদের বৈঠকে ২০১৫ সালের পূর্ব পর্যন্ত অভিবাসীদের উন্নয়নে পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে কাজ করার প্রয়োজনীয়তা বিষয়ে একমত হন তারা।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলে এক বৈঠক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক বলেন, সম্মেলনে ৫৮ দেশের ৮৮ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেছেন। বাংলাদেশ সরকার এবং সুইজারল্যান্ড সরকার যৌথভাবে এ বৈঠকের আয়োজন করেছে। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) এর নির্ধারিত সময়সীমা ২০১৫ এর মধ্যে অভিবাসীদের অবস্থান এবং অধিকার নিয়ে আলোচনা হয় বৈঠকে।

তিনি বলেন, অভিবাসীদের উন্নয়নের সহায়ক হিসেবে বিবেচনার ক্ষেত্রে সকলেই ঐক্যমত পোষণ করেছে।

তিনি আরও বলেন, অভিবাসীরা যখন বিদেশে যায়, তাদের মানবাধিকার নিশ্চিত করার কথা বলা হয়েছে বৈঠকে। এছাড়াও অভিবাসন ও রেমিট্যান্সের খরচ কমানোর বিষয়টি আলোচনা হয়েছে বৈঠকে।

দেশে ফিরে আসার পর অভিবাসীদের নিরাপদ রাখা এবং বিদেশে নৈতিক কর্মক্ষেত্রে নিয়োগের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়াও মানব পাচার এবং মানবাধিকারের বিষয়টি আলোচনায় উঠে এসেছে বলে জানান শহীদুল হক।

তিনি বলেন, এমডিজি এর পরে সাসটেইনেবল ডেভলপমেন্ট গোল (এসডিজি) নিয়ে করণীয় সর্ম্পকে দেশগুলো আলোচনা করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত জিনেসা বলেন, অভিবাসন ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমাদের সবাইকে সহযোগিতার মধ্য দিয়ে এগোতে হবে। অভিবাসন ছাড়াও শিক্ষা, স্বাস্থ্যের মতো বিষয়গুলো বৈঠকে উঠে এসেছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, অর্থনীতি বিভাগের মহাপরিচালক রিয়াজ হামিদুল্লাহ।

x