৫০ বছরে জলবায়ুর ভয়াবহ পরিবর্তন

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে পুরো বিশ্ব। গত ৫০ বছরে বন্যা ও তাপপ্রবাহের মতো দুর্যোগগুলো বেড়েছে চার থেকে পাঁচ গুণ। এ সময়ে দুর্যোগের কারণে মৃত্যু হয়েছে ২০ লাখের বেশি মানুষের। জাতিসংঘের বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা-ডব্লিউএমওর প্রকাশিত এক জরিপে বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) এ তথ্য জানানো হয়।

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বিশ্বজুড়ে বাড়ছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ, হুমকিতে পড়ছে মানুষের জীবন। পাশাপাশি বাড়ছে অর্থনৈতিক ক্ষতিও। বিজ্ঞানীরা জলবায়ু পরিবর্তন আর এর ভয়াবহতা নিয়ে বারবার সতর্ক করে আসলেও মানুষের মধ্যে নেই কোনো ভ্রুক্ষেপ। পরিবেশ রক্ষার পরিবর্তে উল্টো পরিবেশ দূষণ নিয়েই ব্যস্ত সবাই।

জাতিসংঘের জরিপে বলা হয়, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে ৫০ বছরে ২০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, জরিপটি চালানো হয়েছে ১৯৭৯ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ঘটে যাওয়া ১১ হাজারের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে। সত্তরের দশকে গড়ে ৭০০ দুর্যোগ দেখা দিলেও ২০১০ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় তিন হাজারের ওপরে।

ডব্লিউএমও আরও জানায়, বিগত কয়েক বছরে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে বন্যা, ঝড় এবং খরায়। প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তের সংখ্যা এবং আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। কেবল এ বছরই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে, অনেক দেশেই দেখা দিয়েছে তীব্র দাবদাহ, আবার কোথাও কোথাও হয়েছে ভয়াবহ বন্যা। জরিপটি বলছে, ৫০ বছরের আবহাওয়ার চিত্রটি আমাদের জন্য সতর্কবার্তা।

বিগত ২০ বছরে সবচেয়ে বেশি তিন লাখ মানুষের মৃত্যু হয় ইথিওপিয়ার খরায়। আর হারিকেন ক্যাটরিনায় ক্ষতি হয় ১২ হাজার ৫০০ কোটি টাকার সম্পদের। তবে ক্ষতির পরিমাণ বাড়লেও কমেছে প্রাণহানি। ডব্লিউএমও বলছে, গত শতকের সত্তরের দশকে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে প্রতি বছর গড়ে ৫০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

তবে বিগত ১০ বছরে মৃত্যুর সংখ্যা কমে প্রতি বছর ১৮ হাজারে দাঁড়িয়েছে। প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সতর্ককরণ ব্যবস্থার উন্নতির ফলে এমনটি হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির মহাসচিব।

তবে বিপর্যয়ে মৃত্যুর সংখ্যা হ্রাস পাওয়ার খবরটি ইতিবাচক হলেও উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য তা বেশ আশঙ্কাজনক। কারণ বিগত ৫০ বছরে ২০ লাখ মৃত্যুর ৯১ শতাংশই হয়েছে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে।

সুনামগঞ্জমিরর/এসএ

x