দোয়ারায় এলাকাবাসীর উদ্যোগে তৈরী হচ্ছে ভাসমান সেতু

সেতু না থাকায় দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে খেয়া নৌকা দিয়ে নদী পার হতে হচ্ছে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের পান্ডারখালের উত্তর ও দক্ষিণ পাড়ের অন্তত ১০টি গ্রামের ৫০ হাজারের বেশি বাসিন্দাদের। দীর্ঘ ভোগান্তির পরে নিজেদের অর্থায়নে ভাসমান সেতু তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন এলাকাবাসী।

গত বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভাসমান সেতু বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি শিক্ষক এনামুল হকের সভাপতিত্বে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়। মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, পান্ডারগাঁও গ্রামের উত্তর ও দক্ষিণ পাড়ের বাসিন্দাদের দীর্ঘদিনের দাবি পান্ডারখালে সেতু নির্মাণের।

এখানে সেতু না থাকায় পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের বাহাদুরপুর, পান্ডারগাঁও এবং মানিকপুর, চন্ডিপুর, লামাগাঁও, ইদনপুর ও মঙ্গলপুরসহ দুইপাড়ের অন্তত ১০টি গ্রামের মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। স্কুল, কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে খেয়া নৌকায় নদী পারাপার হতে হয়। সরকারি অনুদানে কোনো সেতু নির্মাণ না হওয়ায় এখন এলাকাবাসীর উদ্যোগে ভাসমান সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

এতে প্রায় ৬০-৭০ লাখ টাকা ব্যয় হবে বলে ধারনা করা হয়েছে। মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, শিক্ষক আক্তার হোসেন, আলী হোসেন, মাস্টার মুজাহিদ আলী, ব্যবসায়ী আলী হোসেন, বাবুল মালাকার, সামসুদ্দিন আহমদ, আব্দুল খালেক, আব্দুল হক প্রমুখ।

মত বিনিময় সভা শেষে ভাসমান সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকা পরিদর্শন ও সার্ভে করেছে যশোরের একটি প্রকৌশলী টিম।

সুনামগঞ্জমিরর/এআরআই/এসএ

x