Skip to content

সদরপুর ব্রিজের অ্যাপ্রোচে ধ্বস, দূর্ঘটনার আশঙ্কা

সুনামগঞ্জ-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের শান্তিগঞ্জ উপজেলার সদরপুর এলাকায় মহাসিং এর শাখা নদী নাইন্দার উপর সদরপুর সেতু। খুবই গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটি নির্মাণ করেছে সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ। এর আগেও একবার সেতুর পশ্চিম পাড়ের দক্ষিণাংশ একাধিকবার দেবে গিয়েছিলো। কিছুদিন আগে আবারও ধ্বসে গিয়েছে ব্রিজের এ্যাপ্রোচ। এতে দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এ সড়কে যাতায়াত করা কয়েক হাজার যানবাহন ও সংশ্লিষ্ট শ্রমিকরা।

স্থানীয়রা এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করছেন। তারা বলছেন, বারবার সদরপুর সেতুটির পশ্চিম পাড়ের দক্ষিণ দিক দেবে যাচ্ছে। যে কোনো সময় বড় ধরনের সড়ক দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই স্থায়ীভাবে এই জায়গাটা মেরামত করা দরকার।

এলাকাবাসী জানান, সড়ক ও জনপথ বিভাগ এক মাস আগে ঠিকাদারদের মাধ্যমে ঝুঁকিপূর্ণ ভাঙা অংশটি মেরামত করেছিলো। পরে আবার ভেঙে গিয়েছে। শুক্রবার সরেজমিনে দেখা যায়, সদরপুর সেতুর পশ্চিমপাড়ে মাটি সরে গেছে। ধ্বসে যাওয়া সড়কে লাল কাপড় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এখনো পর্যন্ত সড়কটি সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। রাতের আঁধারে কিংবা দিনের বেলায় ঘটতে পারে যেকোনো ধরনের মারাত্মক দূর্ঘটনা। হতে পারে প্রাণহানিও। ব্রিজের এ অংশ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

সদরপুর গ্রামের তাজ উদ্দিন, কামরূপদলং গ্রামের মাও. শামীম আহমদ ও জাহেদ আহমদ বলেন, ‘সদরপুর সেতু সংলগ্ন পশ্চিম পাড়ের দক্ষিণাংশের রাস্তা ও মাটির অংশ বার বার দেবে গেছে। এর আগেও তারা ঠিক করেছে কিন্তু বার বার ভেঙে যায়। কর্তৃপক্ষ এটাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে মেরামত করতে হবে। তা না হলে দূর্ঘটনা ঘটবে।

এ ব্যাপারে শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ জানান, সিলেট সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের এই ব্রিজের অ্যাপ্রোচটি অতি গুরুত্বপূর্ণ। এটি ধ্বসে যাওয়ায় রাস্তাটি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। যেকোন সময় বড় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। বিষয়টি দ্রুত গতিতে সুনামগঞ্জ জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নজরে নিয়ে সংস্কার করা প্রয়োজন।

সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম প্রামাণিক বলেন, সদরপুর সেতুর ত্রুটিপূর্ণ অংশে কাজ চলমান রয়েছে। ঠিকাদারের লোকজন নিচের অংশ কাজ করেছে। উপরের অংশে এখনো কাজ শুরু হয়নি। তারপরও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে মেরামত করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

ইয়াকুব শাহরিয়ার/সুনামগঞ্জমিরর/টিএম

x