Skip to content

জার্মান নারীর সেই হারানো বিড়াল খুঁজে পাওয়া গেছে

টাঙ্গুয়ার হাওরপাড়ে দেড় মাস আগে জার্মান নারীর হারিয়ে যাওয়া সেই পোষা বিড়ালটি খুঁজে পেয়েছে গ্রামবাসী।

সোমবার (১৫ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টায় উপজেলা সদরে তাহিরপুর থানার পুকুরপাড়ে বিড়ালটি দেখতে পান এলাকার লোকজন।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জার্মান নারীর পোষা বিড়ালটি তাদের জিম্মায় রয়েছে বলে জানা গেছে। দ্রুতই এটিকে ফিরিয়ে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

‘লিও’ নামে পোষা বিড়ালটিকে ধরার সময় রতন রায় নামে এক যুবক আহত হয়েছেন। তার হাতে কামড় দেয় বিড়ালটি। পরে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। রতনের বাড়ি উপজেলার রায়পাড়ায়। বিড়ালটি বর্তমানে তার বাড়িতেই একটি খাঁচায় রাখা আছে।

তাহিরপুর থানার উপ-পরিদর্শক গোলাম হাক্কানী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জার্মান নারী জুলিয়ার সঙ্গে ভিডিও কলে বিড়ালটি দেখাবেন স্থানীয়রা। তিনি নিশ্চিত করলে তার কাছে হস্তান্তর করা হবে পোষা বিড়ালটি।

প্রিয় বিড়ালের অপেক্ষায় দেড়মাস ধরে তাহিরপুরে জার্মান নারী

প্রসঙ্গত, দেড়মাস আগে তাহিরপুর উপজেলার টাঙ্গুয়ার হাওরে বেড়াতে আসেন জার্মান নারী জুলিয়া। সঙ্গে ছিল তার প্রিয় পোষা বিড়াল লিও। দিনভর হাওরের বিভিন্ন প্রান্তে ঘোরা শেষে উপজেলা সদরে ফেরার পথে তাহিরপুর মেশিনবাড়ি ট্রলার ঘাট থেকে বিড়ালটি হারিয়ে যায়।

এরপর থেকে বিড়ালের খোঁজে দেড়মাস ধরে তাহিরপুরেই অবস্থান করছেন এই ভিনদেশী নারী। তার আশা, ফিরে আসবে লিও। পোষা বিড়ালের প্রতি জার্মান নারীর এমন ভালোবাসা দেখে অবাক এলাকার মানুষ।

স্থানীয়রা জানান, দেড়মাস আগে হাওরে ঘুরতে আসেন জার্মান নারী জুলিয়া ওয়াসিমান। তিনি বাংলায় কথা বলতে পারেন। বিড়ালটি হারিয়ে যাবার পর তাকে ফিরে পেতে তিনি এখনো তাহিরপুরেই অবস্থান করছেন। এলাকায় মাইকিংও করিয়েছেন বিড়ালের সন্ধান চেয়ে।

মাইকে ‘লিও’ ও জুলিয়ার কথোপকথনও প্রচার করা হয়েছে, যেন তা শুনে প্রিয় মনিবের কণ্ঠস্বর চিনতে পারে বিড়ালটি। এছাড়া কেউ লিওয়ের সন্ধান দিতে পারলে তাকে পুরষ্কৃত করা হবে বলেও জানানো হয়।

তাহিরপুর বাজারের ব্যবসায়ী সাদেক আলী জানান, জার্মান এই নারী তার পোষা বিড়ালটি হারিয়ে ভীষণ মর্মাহত। নিজ দেশে ফিরে না গিয়ে বিড়ালকে ফিরে পাওয়ার অপেক্ষায় এখনো তাহিরপুরেই অবস্থান করছেন তিনি। পোষা বিড়ালের প্রতি জার্মান নারীর এমন ভালোবাসা আমাদেরকে মুগ্ধ করেছে।

সুনামগঞ্জমিরর/এমএ রাজ্জাক/টিএম
সুনামগঞ্জমিরর/জাহাঙ্গীর আলম/এসএ

x