Skip to content

পদ্মা সেতু পার হয়ে উচ্ছ্বসিত তারা

যানবাহন পারাপারের জন্য আজ (২৬ জুন) খুলে দেওয়া হয়েছে পদ্মা সেতু। সেতুতে টোল দিয়ে যানবাহন পারাপার শুরু হয়েছে সকাল ৬টা থেকে। তাই তো প্রথমবার সেতু পার হতে পেরে হয়ে উচ্ছ্বসিত চালক ও যাত্রীরা। 

সরেজমিনে দেখা যায়, ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে সেতু পার হচ্ছেন যানবাহনের চালক ও যাত্রীরা। তারা ভোররাত থেকেই ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে ভিড় করতে থাকেন। স্মৃতি ধরে রাখার জন্য অনেকে ফোনে ছবি তুলছেন বা ভিডিও করছেন। 

Dhaka post

শিমুলিয়া প্রান্ত থেকে আসা মিন্টু সরকার বলেন, এটি একটি স্মরণীয় দিন। পদ্মা সেতু পার হয়ে আসার অনুভূতি প্রকাশ করার মতো না। সেতুর ওপর দিয়ে যখন আসছি, মনে হয়েছে যেন বিশ্ব জয় করে এলাম। 

টোল ম্যানেজার কামাল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, সকাল ৬টা থেকে টোল আদায়ের মাধ্যমে সেতুতে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। ৬টি টোলঘর থেকে টোল নেওয়ার কার্যক্রম চলছে। এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যা হয়নি। 

এর আগে শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টার কিছু সময় পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ হাতে নির্ধারিত টোল পরিশোধ করে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া থেকে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে আসেন।

Dhaka post

প্রসঙ্গত, পদ্মা সেতু পারাপারে সরকার নির্ধারিত টোল হার- মোটরসাইকেল ১০০ টাকা, কার ও জিপ ৭৫০ টাকা, পিকআপ ১ হাজার ২০০ টাকা, মাইক্রোবাস ১ হাজার ৩০০ টাকা, ছোট বাস (৩১ আসন) ১ হাজার ৪০০ টাকা, মাঝারি বাস (৩২ আসন বা এর বেশি) ২ হাজার টাকা, বড় বাস (থ্রি-এক্সেল) ২ হাজার ৪০০ টাকা, ট্রাক (পাঁচ টন পর্যন্ত) ১ হাজার ৬০০ টাকা, মাঝারি ট্রাক (পাঁচ টনের বেশি ও সর্বোচ্চ আট টন পর্যন্ত) ২ হাজার ১০০ টাকা, মাঝারি ট্রাক (৮ টনের বেশি ও সর্বোচ্চ ১১ টন) ২ হাজার ৮০০ টাকা, ট্রাক (থ্রি-এক্সেল পর্যন্ত) ৫ হাজার ৫০০ টাকা, ট্রেইলার (ফোর-এক্সেল পর্যন্ত) ৬ হাজার টাকা।

সুনামগঞ্জমিরর/এসএ

x