যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি ‘পাত্তা’ দিচ্ছে না তুরস্ক

রাশিয়ার সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য অব্যাহত রাখলে তুরস্কের ওপর নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে সেই হুমকিকে মোটেই পাত্তা দিচ্ছে না তুরস্ক। যুক্তরাষ্ট্রের এসব হুমকি ‘অর্থহীন’ বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের অর্থমন্ত্রী নুরদ্দিন নেবাতি।

শুক্রবার (২৬ আগষ্ট) বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এক টুইট বার্তায় নুরদ্দিন নেবাতি বলেন, তুর্কি ব্যবসায়িক গোষ্ঠীগুলোকে পাঠানো চিঠিটি ব্যবসায়িক মহলে মধ্যে অর্থহীন উদ্বেগ তৈরি করেছে। আমরা আমাদের প্রতিবেশীদের সঙ্গে আমাদের অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক উন্নত করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, বিশেষ করে পর্যটনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এমন একটি কাঠামোর মধ্যে যা নিষেধাজ্ঞার অধীন নয়।

এর আগে, তুরস্কের প্রধান বাণিজ্যিক অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি বিভাগ তাদের কাছে চিঠি দিয়ে বলেছে, যদি তারা রাশিয়ার সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য অব্যাহত রাখে তাহলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভয়, তাদের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা পাশ কাটাতে তুরস্ককে ব্যবহার করছে রাশিয়া ও রাশিয়ার বাণিজ্য প্রতিষ্ঠানগুলো। এটি ঠেকাতেই রাশিয়ার সঙ্গে কোনো বাণিজ্য না করতে তুরস্ককে হুশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এ মাসের মাঝামাঝি সময়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে দেখা করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিস্যেপ তাইয়েপ এরদোগান। তখন পুতিন-এরদোগান ঘোষণা দেন নিজেদের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বৃদ্ধি করবেন তারা।

গত কয়েকদিনে রাশিয়ার জ্বালানি কেনার পরিমাণ অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে তুরস্ক।

তাছাড়া রাশিয়ার যেসব ধনকুবেরের ওপর যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তারা তাদের দামি প্রমোদতরীগুলো তুরস্কের বন্দরে নিয়ে আসছেন যেন এগুলো অন্য কোনো দেশ আটক করতে না পারে।

এদিকে, রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার শুরু থেকেই নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করছে তুরস্ক। ফলে পশ্চিমাদের সঙ্গে এক হয়ে তারা রাশিয়ার ওপর কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি।

সুনামগঞ্জমিরর/এসএ

x