জার্মানিকে গ্যাস না দিয়ে পুড়িয়ে ফেলছে রাশিয়া

ইউরোপে বর্তমানে জ্বালানি গ্যাসের দাম আকাশ ছুঁয়েছে। আর এমন সময় বিপুল পরিমাণ গ্যাস জার্মানিকে না দিয়ে পুড়িয়ে ফেলছে রাশিয়া। বিশ্লেষকদের বরাতে গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে এ তথ্য।

বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ফিনল্যান্ড সীমান্তের কাছে পোর্তোভায়া গ্যাস প্লান্টে প্রতিদিন ৮.৪ মিলিয়ন ডলার মূল্যের গ্যাস পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে। রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের পূর্ব দিকে অবস্থিত প্লান্টটি।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এসব গ্যাস এর আগে জার্মানিতে সরবরাহ করত রাশিয়া। নর্ড স্ট্রিম-১ পাইপ লাইন দিয়ে এগুলো জার্মানিতে যেত।

যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, রাশিয়া গ্যাসগুলো এমনিতেই পুড়িয়ে ফেলছে কারণ এগুলো তারা অন্য কোথাও বিক্রি করতে পারছে না।

অযথা গ্যাস পুড়িয়ে ফেলায় বিজ্ঞানীরা কার্বন ডাইঅক্সাইডের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে সতর্ক করেছেন। এতে করে উত্তরমেরুর বরফ গলার ঝুঁকি সৃষ্টি হচ্ছে।

রেস্টেড এনার্জি জানিয়েছে, প্রতিদিন গড়ে পোড়ানো হচ্ছে ৪.৩৪ মিলিয়ন ঘন ফুট গ্যাস।

প্লান্টের কাছে অবস্থিত ফিনল্যান্ডের সাধারণ মানুষের নজরে বিষয়টি আসে প্রথমে। তারা বিশাল বড় আগুনের কুণ্ডলি দেখতে পান।

এদিকে গত মে মাস থেকে জার্মানিতে গ্যাসের সরবরাহ অনেক কমিয়ে দেয় রাশিয়া। প্রযুক্তিগত কারণ দেখিয়ে রাশিয়া এটি করতে বাধ্য হয়েছে বলে দাবি করে গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গ্যাসপ্রম। কিন্তু জার্মানির দাবি সম্পূর্ণ রাজনৈতিকভাবে রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ কমিয়ে দিয়েছে।

গ্যাস প্লান্টের নিরাপত্তা ও অন্যন্য প্রযুক্তিগত কারণে গ্যাস পুড়িয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন বর্তমানে ওই প্লান্টে গ্যাস পোড়ানোর কারণে যে বড় আগুনের কুণ্ডলি জ্বলছে সেটি স্বাভাবিক নয়। গত জুন মাস থেকে এমন দৃশ্য দেখা যাচ্ছে এবং এটি অব্যাহত আছে।

সূত্র: বিবিসি

সুনামগঞ্জমিরর/এসএ

x