সুনামগঞ্জ সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে ‘সংঘর্ষে’ যুবক নিহত

সুনামগঞ্জের বনগাঁও সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে কামাল হোসেন (৩৫) নামে এক যুবক মারা গেছেন। নিহত ওই যুবক জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের আব্দুল আউয়ালের ছেলে।

শনিবার (৬ মার্চ) দুপুর সোয়া ১২ টায় বনগাঁও সীমান্ত এলাকার ১২১৫ নং আন্তর্জাতিক পিলারের পূর্ব দিকে সাংবাদিক টিলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও বিজিবি সূত্রে জানা যায়, দুপুরে বনগাঁও সীমন্ত দিয়ে ভারত থেকে অবৈধভাবে গরু আনছিল একদল চোরাকারবারি। বিষয়টি টের পেয়ে বিজিবির বনগাঁও ক্যাম্পের সদস্যরা অন্তত ২৫ টি গরু আটক করে। এ নিয়ে চোরাকারবারিদের সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষ বাঁধে।

এ সময় আশপাশের গ্রামের লোকজন ও চোরাকারবারিদের হামলায় বিজিবির ল্যান্স নায়েক লারমা আহত হন। তখন বিজিবি ল্যান্স নায়ের আত্মরক্ষার্থে দুই রাউন্ড গুলি করে। এতে কামাল হোসেন গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে দুপুর দুইটায় সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে পাঠান। পরে বিকেল সোয়া ৫টায় সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় কামাল হোসেন।

বিবিজির সুনামগঞ্জ ২৮ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মাকসুদুল আলম জানান, গোপন সূত্রের খবর পেয়ে বিজিবি গরুগুলো আটক করার চেষ্টা করে। এ সময় চোরাকারবারিদের সঙ্গে ইসলামপুর গ্রামের কিছু লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিজিবির ওপর হামলা করে। চোরাকারবারিদের দায়ের কোপে একজন ল্যান্স নায়েক আহত হয়েছেন। আত্মরক্ষার্থে গুলি করলে কামাল গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয় বলে জানতে পেরেছি। সে মারা গেছে কি না সে বিষয়টি আমাদের জানা নেই।

সুনামগঞ্জমিরর/টিএম

x