‘শাল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’

র‍্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন, সুনামগঞ্জের শাল্লার ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের ছাড় দেওয়া হবে না। যারা দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টি করছে, তাদের অতি দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচার নিশ্চিত করারও আশ্বাস দেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) উপজেলার হবিবপুর নয়াগাঁও মধ্যহাটিতে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন আরও বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এতে এক পক্ষ সহ্য করতে পারছে না। তাই দেশে সাম্প্রদায়িক অশান্তি সৃষ্টি করে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চাইছে। দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেভাবে দেশ থেকে জঙ্গিবাদ দমনে বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখে বিশ্ব দরবারে দেশের সুনাম অর্জন করেছে সেভাবে অচিরেই সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদের কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে।”

চৌধুরী আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। এখানে সবার সমান অধিকার রয়েছে। কেউ যদি সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন করে, তা সহ্য করা হবে না।

এর আগে বেলা ১১টায় ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি পরিদর্শন করেন তিনি।

সোমবার (১৫ মার্চ) দিরাইয়ে আসেন মামুনুলসহ হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতারা। সে সময় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করায় মামুনুলের সমালোচনা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন ঝুমন দাশ আপন নামের এক যুবক।

ওই রাতেই আপনকে গ্রেপ্তারের দাবিতে হেফাজত নেতার অনুসারীরা বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করলেও বুধবার সকালে এই গ্রামে বাড়িঘর ভাঙচুর, লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এতে কোনো হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও আতঙ্কে গ্রাম ছেড়ে যাচ্ছেন বাসিন্দারা সংখ্যালঘুরা।

এদিকে শাল্লায় হিন্দুদের বাড়িতে হেফাজতে ইসলামের সমর্থকদের হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনার প্রায় ৩০ ঘণ্টা পর মামলা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় এ মামলা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হক।

ঘটনার তদন্ত ও সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে মামলার বাদী, আসামিদের নাম ও সংখ্যাসহ বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করতে অপারগতা জানিয়েছেন তিনি।

ওসি নাজমুল হক বলেন, “হামলার পর থেকেই আমরা তদন্ত শুরু করেছি। এখন আসামিদের ধরতে অভিযান শুরু হয়েছে। শিগগিরই বিস্তারিত জানানো হবে।”

র‍্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ্ আল মামুন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “খুব দ্রুত জড়িতদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।”

  • পীর জুবায়ের, সহকারী বার্তা সম্পাদক, সুনামগঞ্জ মিরর

x